kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


লন্ডন-প্যারিস মুখোমুখি!

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



লন্ডন-প্যারিস মুখোমুখি!

ফ্যাশন কিংবা ইতিহাস, স্থাপত্য কিংবা শিল্পকলা থেকে ফুটবল...যা-ই হোক না কেন লন্ডন এবং প্যারিস এ দুটো শহরকে বাদ দিয়ে কল্পনা করা কঠিন। ইউরোপের তথা বিশ্বেরই প্রধান দুটো শহর এক হয়ে গেলে কেমন হয়? আজ রাতে আংশিক অন্তত হচ্ছে, কারণ লন্ডনের ক্লাব চেলসির মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজেই যে আজ রাতে চ্যামিপয়নস লিগের ফিরতি লেগের খেলা প্যারিস সেন্ত জার্মেইর।

নিজের মাঠে প্রথম লেগটা ২-১ গোলে জিতেই টেমসের পাড়ে এসেছেন জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ-এদিনসন কাভানিরা। তবে সেই সুখে অস্বস্তির কাঁটা হয়ে বিঁধে আছে প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে করা জন ওবি মিকেলের গোল। প্রতিপক্ষের মাঠে এক গোল করায় আজ ১-০ গোলে জিতলে চেলসিই যে পা রাখবে কোয়ার্টার ফাইনালে।

লন্ডনে আসা দলে মার্কো ভেরাত্তি ও ব্লাইস মাতুইদিকেও রেখেছেন পিএসজি কোচ লঁরা ব্লঁ। ভেরাত্তি কুঁচকি ও মাতুইদি ঊরুর চোটে ভুগছিলেন। চেলসিতে খেলা দাভিদ লুইজও ফিরছেন স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে, ভিন্ন জার্সি গায়ে। গত মৌসুমে চেলসির বিপক্ষে গোল করে উদ্যাপন না করার ঘোষণা দেওয়ার পরও উল্লাসে ফেটে পড়াতে সমালোচনাও হয়েছে এই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডারকে ঘিরে। উয়েফা ডটকমের কাছে অকপটেই স্বীকার করলেন, ম্যাচের উত্তেজনায় ভেসে গিয়েই এমনটা করে বসেছিলেন।

বেনফিকার সঙ্গে নিজের মাঠে খেলা জেনিতের। প্রথম লেগে ম্যাচের ইনজুরি সময়ে করা হোনাসের গোলে ১-০-তে এগিয়ে আছে বেনফিকা। উয়েফা ডটকম


মন্তব্য