kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মুস্তাফিজকে ছাড়াই প্রথম ম্যাচের অঙ্ক

ধর্মশালা থেকে প্রতিনিধি    

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মুস্তাফিজকে ছাড়াই প্রথম ম্যাচের অঙ্ক

একপাশে অনুশীলনে ব্যস্ত বাংলাদেশ দল। অন্য পাশে মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে রীতিমতো ত্রস্ত ফিজিও-ট্রেনার।

কিছুক্ষণ পর পর সেখানে এসে যোগ দেন আরো অনেকে। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা থেকে শুরু করে ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ পর্যন্ত। ধর্মশালার অনুশীলনে বাংলাদেশ দলের চাপা টেনশন পড়ে নিতে এতটুকু অসুবিধা হয় না কারো। মুস্তাফিজ খেলতে পারবেন তো?

ডান দিকের পাঁজরের পেশিতে এই পেসারের টান লাগে এশিয়া কাপে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে। যে কারণে ওই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যান তিনি। বাংলাদেশ ক্যাম্পের আশা ছিল, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পূর্ণ ফিট মুস্তাফিজকে পাওয়ার। কিন্তু আজ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচে অন্তত সেটি হচ্ছে না। পূর্ণ ফিট হবেন কী, তাঁর খেলা নিয়েই তো ঘোরতর সংশয়!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগের একমাত্র প্র্যাকটিস সেশন ছিল কাল। তাতে ব্যাট-বলে নিজেদের ঝালিয়ে নেন বাংলাদেশের সবাই। ব্যতিক্রম কেবল মুস্তাফিজ। ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামের সঙ্গে ড্রিল করেই কাটে তাঁর ঘণ্টা দুয়েক সময়। দলের অনুশীলনের শেষ দিকে কেবল হালকা বোলিং করেন তিনি। তবে তাতে যে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন, সেটি না বললেও চলছে। আর বাংলাদেশ দলেরও এই পেসারকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নেওয়ার কথা নয়। আজ তাই প্রায় নিশ্চিতভাবে মুস্তাফিজকে ছাড়া মাঠে নামছে মাশরাফির দল।

অনুশীলন শেষের সংবাদ সম্মেলনে অবশ্য অতটা নিশ্চিত করে কিছু বলেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক, ‘মুস্তাফিজের চোট আছে—এটা তো পরিষ্কারই। সে শেষ দুটি ম্যাচ খেলেনি। ’ আর সংবাদ সম্মেলন শেষে হেঁটে বেরিয়ে যাওয়ার সময় যেন সম্ভাবনার প্রদীপটা জ্বালিয়ে রাখতে চাইলেন মাশরাফি, ‘ওর অবস্থা এখন ভালো। উন্নতি হচ্ছে। ’ তবে সেই উন্নতির সিঁড়ি বেয়ে আজকের একাদশে ঢুকে যাবে এই বিস্ময়ের নাম—অমন খবর কাল রাত পর্যন্ত অন্তত ছিল না।

নিজেদের সংবাদ সম্মেলনে নেদারল্যান্ডসের কোচ পিটার বোরেন বাংলাদেশের বোলিং নিয়ে করেন ভূয়সী প্রশংসা। কিন্তু মুস্তাফিজের নাম সেখানে বললেনই না! পরে সেটি মনে করিয়ে দিতেই জিভ কাটার দশা তাঁর, ‘হ্যাঁ, ও তো দারুণ বোলার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসার পর থেকেই ভালো করছে। ’ ইনজুরির কারণে মুস্তাফিজ অনিশ্চিত জেনে বরং স্বস্তির হাসি খেলে যায় ডাচ অধিনায়কের ঠোঁটে, ‘এটি তো তাহলে খুব ভালো খবর। ’

নেদারল্যান্ডসের জন্য ভালো খবরটি বাংলাদেশের জন্য কতই না দুঃসংবাদ!


মন্তব্য