বাংলাদেশের কাছে হারলে কম খারাপ লাগে-332693 | খেলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


মুখোমুখি প্রতিদিন

বাংলাদেশের কাছে হারলে কম খারাপ লাগে

ভারতের দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার হয়ে দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতার সঙ্গে জড়িত গৌতম ভট্টাচার্য বাংলা ভাষার সেরা ক্রিকেট লেখক হিসেবে গণ্য। ১৯৮৮ সালের এশিয়া কাপ দিয়ে শুরু করে বাংলাদেশে এসেছেন বহুবার, উপস্থিত এবারও। চোখের সামনে বাংলাদেশ দলকে বদলে যেতে দেখার অভিজ্ঞতাটা শুনিয়েছেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাংলাদেশের কাছে হারলে কম খারাপ লাগে

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে দেখছেন কিংবা খোঁজখবর রাখছেন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ দলে কী পরিবর্তন দেখতে পাচ্ছেন?

গৌতম ভট্টাচার্য : পরিবর্তনটা অবশ্যই ভালোর দিকে। ভারতের এত বিশাল জনসংখ্যা, এমআরএফ পেস ফাউন্ডেশন আছে, এনসিএর মতো উন্নত একটা প্রতিষ্ঠান যেখানে বিশ্বমানের ট্রেনাররা আছে সেখানেও জহির খানের পর আর কোনো ফাস্ট বোলার বেরোয়নি। আর বাংলাদেশ ভারতের পাশের দেশ এবং সাংস্কৃতিকভাবে অনেক কাছাকাছি হয়েও বেশ কজন ফাস্ট বোলার তুলে এনেছে, যারা নিয়মিত ১৪০ কিলোমিটারের ওপরে বল করে। এটা খুবই কৃতিত্বের এবং দূরদর্শিতার। সাবেকি বাংলাদেশের সঙ্গে পার্থক্যটা এখানেই।

প্রশ্ন : চোখের সামনে শ্রীলঙ্কাকে বড় দল হয়ে উঠতে দেখেছেন, জিম্বাবুয়ের সোনালি সময়ে উত্থান দেখেছেন, সেই আলোকে বাংলাদেশের সম্ভাবনাটা কতটুকু দেখছেন?

গৌতম : শ্রীলঙ্কায় ক্রিকেট নিয়ে এতটা আবেগ নেই। এখানে ক্রিকেটারদের যেমন অণুবীক্ষণ যন্ত্রের নিচে ফেলে মাপা হয়, জিম্বাবুয়ে বা শ্রীলঙ্কায় এই আবেগটা ছিল না। তাই সম্ভাবনা যেমন আছে তেমনি শঙ্কাও আছে। এই আবেগ একটা পর্যায় পর্যন্ত দলকে উজ্জীবিত করে বটে, তবে কখনো কখনো দলের জন্য ক্ষতিকারক।

প্রশ্ন : পূর্বপুরুষ বাংলাদেশের, আপনি ভারতের নাগরিক। বাংলাদেশ-ভারত মুখোমুখি হলে আপনার সমর্থনের ধরনটা কী রকম হয়?

গৌতম : আমি চাই খুব লড়াই হবে এবং ভারত ২ রানে জিতবে। ভারতের প্রতিই আমার আনুগত্য বেশি। তবে পাকিস্তান বা শ্রীলঙ্কার কাছে ভারত হারলে আমার যতটা খারাপ লাগে তার চেয়ে বাংলাদেশের কাছে হারলে অনেক কম খারাপ লাগে। সাংবাদিকতার নীতি হচ্ছে নিরপেক্ষ থাকা, কিন্তু একটা তরুণ দল দুর্ধর্ষ খেলে একটা শক্তিশালী দলকে হারিয়ে দিলে সেই দলের প্রতিও একটা ভালোবাসা তৈরি হয়। প্রশ্ন : ফাইনালের রিয়ালিস্টিক চান্স, কী হতে পারে?

গৌতম :  ভারত আগে ব্যাট করলে ভারতীয় ওপেনাররা বাংলাদেশের পেসারদের অ্যাটাক করবে। বাংলাদেশ আগে ব্যাট করলে বুমরাহ, নেহরাদের কেমন খেলে সেটা দেখার আছে। প্রথম ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারেই ম্যাচের গতি-প্রকৃতিটা ঠিক হয়ে যাবে।

প্রশ্ন : আর বাংলাদেশ ম্যাচটা জিতেই গেলে?

গৌতম : আত্মবিশ্বাস প্রচণ্ড বাড়িয়ে দেবে। একটা টুর্নামেন্টে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে জেতা আর ভালো খেলে রানার্স-আপ হওয়াতে আকাশ-পাতাল তফাত। এই ভারতীয় দলটা টি-টোয়েন্টিতে ভারতের ইতিহাসের অন্যতম সেরা দল, তাদের হারিয়ে দেওয়াটা বিশাল কৃতিত্বের, যা আত্মবিশ্বাস অনেক বাড়িয়ে দেবে।

মন্তব্য