মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার নতুন-332341 | খেলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার নতুন রেকর্ড

৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার নতুন রেকর্ড

হ্যাটট্রিক হতে পারত ৬৯ মিনিটে। পেনাল্টি নিজে না নিয়ে লিওনেল মেসি ছেড়ে দিলেন লুই সুয়ারেসকে। উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার ১২ গজ দূর থেকে লক্ষ্য ভেদ করতে ব্যর্থ হলে আক্ষেপে পোড়ারই কথা মেসিভক্তদের। যদিও হতাশ হতে হয়নি, মিনিট তিনেক পর বার্সেলোনার জার্সিতে ৩৫তম হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন আর্জেন্টাইন খুদে জাদুকর। তাঁর সঙ্গে ইভান রাকিটিচ ও আরদা তুরানের লক্ষ্যভেদে রায়ো ভায়েকানোর মাঠ থেকে ৫-১ গোলে জিতে ফিরেছে ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা। এরই সঙ্গে স্প্যানিশ ফুটবলে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডটাও নিজেদের করে নিয়েছে কাতালানরা টানা ৩৫ ম্যাচ না হেরে।

আগের রেকর্ডটা ছিল রিয়াল মাদ্রিদের। ১৯৮৮-৮৯ মৌসুমে টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত ছিল ‘লস ব্ল্যাঙ্কোস’। সেভিয়াকে হারিয়ে তাতে ভাগ বসানো বার্সেলোনা রেকর্ডটা নিজের করে নিয়েছে ৯ জনের ভায়েকানোর বিপক্ষে। এমনিতে অপ্রতিরোধ্য বার্সার সামনে দাঁড়ানো কঠিন, তার ওপর আবার দুই খেলোয়াড় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে খেলা শেষের আগেই ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। রাকিটিচের লক্ষ্যভেদে ২২ মিনিটে এগিয়ে যাওয়া বার্সা এক মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে মেসি জাল খুঁজে পেলে। ৫৩ মিনিটে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড আবারও গোল করলে স্কোর দাঁড়ায় ৩-০। ৫৭ মিনিটে অবশ্য একটা গোল শোধ করেছিল ভায়েকানো মানুচো গনকালভেসের লক্ষ্যভেদে। মিনিট দশেক পর সের্হিয়ো বুশকেৎসকে নিজেদের বক্সে মানুয়েল ইতুরা ফাউল করলে সরাসরি লাল কার্ডে মাঠ ছাড়ার সঙ্গে ‘উপহার’ দিয়ে যায় পেনাল্টি। সুবর্ণ এ সুযোগটা কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন সুয়ারেস। এর পরই মেসি নিজের ৩৫তম হ্যাটট্রিক পূরণ করে ধরে ফেললেন স্প্যানিশ ফুটবলে সবচেয়ে বেশি হ্যাটট্রিক করার তালিকায় শীর্ষে থাকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে। ৮৬ মিনিটে এসে কাতালানদের গোলোৎসব থামে তুরান বার্সার জার্সিতে প্রথমবার জাল খুঁজে পেলে।

সেভিয়ার ম্যাচ জেতার পরই লুই এনরিকে জানিয়েছিলেন, রেকর্ডের কোনো অর্থ নেই তাঁর কাছে, শিরোপাই মুখ্য। স্প্যানিশ ফুটবলে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়ার পরও বিষয়টা নিয়ে খুব একটা আগ্রহ দেখালেন না বার্সা কোচ, ‘আমরা খুব ভালো খেলেছি। পারফরম্যান্সের এই পর্যায়টা ধরে রাখলে প্রতিপক্ষদের কাজটা খুব কঠিন হবে।’ আর পেনাল্টি মিস নিয়ে বললেন, ‘এই জায়গায় আমাদের উন্নতি করতে হবে। যদিও বিষয়টা নিয়ে মোটেও চিন্তিত নই, যখন ম্যাচটা একরকম জিতেই নিয়েছিলাম।’ দুশ্চিন্তা না হওয়ারই কথা, লিগ শিরোপা জয়ের পথে যে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল তাঁর দল। ২৭ রাউন্ড শেষে কাতালানরা শীর্ষস্থানে আছে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের চেয়ে ৮ এবং রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে থেকে।

ঘরের মাঠে অবশ্য হেরে গেছে কাতালুনিয়ার আরেক ক্লাব এস্পানিওল। রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে তাদের হার ৩-০ গোলে। গ্রানাদা ২-০ গোলে জিতেছে স্পোর্তিং গিজনের বিপক্ষে। এএফপি

মন্তব্য