ভোট কিনেছেন ইনফান্তিনো!-331177 | খেলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


ভোট কিনেছেন ইনফান্তিনো!

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ভোট কিনেছেন ইনফান্তিনো!

জিয়ানি ইনফান্তিনোর জয়ে বিশ্ব ফুটবলে অস্বস্তির চেয়ে স্বস্তিই বেশি। নিন্দুকের সংখ্যা হাতে গোনা। তাঁদের একজন ইতালিয়ান ক্লাব পালেরমোর সভাপতি মরিজিও জাম্পারিনি। সোজাসাপ্টা কথা এবং একের পর এক কোচ বরখাস্তের জন্য আলোচিত জাম্পারিনি ফিফার নতুন সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন ভোট কিনে নেওয়ার। তাঁর ভাষায়, ‘সে নির্বাচিত হয়েছে কারণ শেখ সালমানের চেয়ে সে বেশি ভোট কিনতে পেরেছে।’ সেপ ব্লাটারের এ উত্তরসূরিকে ফিফার দুর্নীতিগ্রস্তদের অন্যতম দোসর বলেও দাবি করেছেন জাম্পারিনি, ‘ফিফার কিছুই বদলায়নি। এ শীর্ষ আমলা সব রকম দুর্নীতির সঙ্গেই ছিল।’

ইনফান্তিনোর জয়ে খোদ ব্ল্যাটারের উচ্ছ্বাস অনেকের ভ্রু কুঁচকে দিয়েছে। দুর্নীতির দায়ে নিষিদ্ধ মিশেল প্লাতিনির তো ডান হাতই ছিলেন তিনি। এর পরও ভোটের বাক্স তাঁর দিকে হেলে পড়ায় বিশ্ব ফুটবলে তেমন নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হয়নি। জাম্পারিনি নিজে খোলাখুলি মন্তব্যের পর অবশ্য প্রতিক্রিয়া দেখার জন্য তৈরি, ‘আশা করি আমার এ কথার পর ওরা আমাকে নিষিদ্ধ করবে; কিন্তু সেটা হবে আমার জন্য সম্মানের।’ এদিকে নির্বাচিত হওয়ার পর ইনফান্তিনো কালই প্রথম ফিফার সদর দপ্তরে গেছেন। প্রথম দিনই ভোট কেনাবেচার কারণে বিতর্কিত রাশিয়া ও কাতারের আগামী দুটি বিশ্বকাপ নিয়ে আশার বাণী তাঁর কণ্ঠে। এ দুটি আসরের আয়োজক নির্ধারণ নিয়ে এখনো তদন্ত চালাচ্ছে সুইস পুলিশ। কিন্তু ইনফান্তিনো জানিয়ে দিয়েছেন, নির্ধারিত সময়েই সব কিছু হওয়ার জন্য জোর চেষ্টা চালিয়ে যাবে ফিফা, ‘২০১০-এ-ই ঠিক হয়ে গেছে ২০১৮ ও ২০২২-এর বিশ্বকাপ কোথায় হবে। কিন্তু তখন থেকেই আবার এর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ, নানা রকম সন্দেহ তৈরি হয়েছে। আমাদের এখন করণীয় হলো সাংগঠনিক দক্ষতার রাশিয়া ও কাতারে এ দুটি বিশ্বকাপ আয়োজন করা।’ ২০২৬ বিশ্বকাপের আয়োজক কারা হবে তার প্রক্রিয়াও খুব শিগগির শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ৪৫ বছর বয়সী এ সংগঠক।

এদিন ফিফার সদর দপ্তরের মাঠেই লুই ফিগো, আন্দ্রে শেভচেঙ্কো, ফ্যাবিও ক্যানাভারোর মতো সাবেক তারকাদের সঙ্গে নিয়ে একটি প্রদর্শনী ম্যাচেও খেলেছেন ফিফার নতুন সভাপতি। তাঁকে স্বাগত জানিয়ে ফিগোর টুইট, ‘ফিফায় নতুন যুগের সূচনা হলো।’ সংবাদকর্মীরা শুরুর দিন থেকেই তাঁকে অবশ্য চাপে রাখতে চেয়েছেন। ফিফায় তাঁর বেতন কত হবে—এমন প্রশ্নও ছুটে গেছে। ব্ল্যাটারের ১৮ বছরের শাসনকালে যা কখনোই জানা যায়নি। কিন্তু এবারের সংস্কার প্রস্তাবেই বলা হয়েছে সভাপতির বেতন প্রকাশ্যে ঘোষণা করতে হবে। ইনফান্তিনো অবশ্য জানিয়েছেন সেটি এখনো চূড়ান্তই হয়নি। এএফপি

মন্তব্য