kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চাইলেন রোনালদো

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চাইলেন রোনালদো

শনিবার রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে হয়ে যাওয়া মাদ্রিদ ডার্বিতে রেফারি ক্লস গোমেজের শেষ বাঁশি বাজানোর পর থেকে সোমবার সকাল ১১টার দিকে ভালদেবেসে রিয়ালের অনুশীলন মাঠে সবার উপস্থিত হওয়ার মাঝের ৪০ ঘণ্টায় বদলে গেছে অনেক কিছুই। কার্লো আনচেলোত্তি রিয়াল মাদ্রিদের কোচের দায়িত্ব ছেড়ে চলে যাওয়ার পরপরই রিয়ালের ড্রেসিংরুমে যে অশান্তির চোরাস্রোতের আভাস পাওয়া যাচ্ছিল, মাদ্রিদ ডার্বিতে রিয়ালের হারের পর তা প্রকাশ্য।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো মিক্সড জোনে সোজাসাপ্টা ভাষায় দোষারোপ করেছিলেন সতীর্থদের। বাকিরা যে ব্যাপারটা ভালোভাবে নেয়নি, সেটা খুবই স্বাভাবিক। তবে আপাতত অশান্তির আগুনটা নিভে গেছে অল্পতেই, দাবানলের মতো ছড়ায়নি চারপাশে। ড্রেসিংরুমে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন রোনালদো, তাতে এ যাত্রা অন্তত জতুগৃহ হচ্ছে না রিয়ালের ড্রেসিংরুম।

ম্যাচ শেষে রোনালদো কী বলেছিলেন, তা এখন প্রায় সবারই জানা। ‘দলের বাকি সবাই যদি আমার মতো হতো, তাহলে আমরাই শীর্ষে থাকতাম’—এমনটাই বলেছিলেন একদা বিশ্বের সবচেয়ে দামি এ ফুটবলার। অথচ তাঁর সতীর্থদের তালিকায় হামেস রোদ্রিগেস, গ্যারেথ বেল, টোনি ক্রস এমন অনেক নাম, যাঁদের ফুটবল প্রতিভা ও সামর্থ্য বিশ্বমঞ্চে প্রমাণিত। খুব স্বাভাবিকভাবেই রোনালদোর এমন মন্তব্য তাঁদের পছন্দ হওয়ার কথা নয়। পরে রোনালদো নিজের কথামালার ব্যাখ্যায় বলেছেন, তিনি আসলে ফিটনেস লেভেলের কথা বলছিলেন, ঠিক এভাবে বলতে চাননি এমন অনেক কিছুই। তবে সেসবে যে চিড়ে ভেজেনি সোমবারের অনুশীলনের আগে ড্রেসিংরুমে তাঁর ক্ষমা চাওয়াতেই তা স্পষ্ট। এক দিনের বিরতি দিয়ে সোমবার আবার অনুশীলনে নামেন রিয়ালের ফুটবলাররা। অনুশীলন শুরুর আগে রোনালদো ড্রেসিংরুমে নিজের অবস্থান অন্যদের কাছে তুলে ধরেছেন, ভুল শব্দ ব্যবহার করে নিজের মনোভাব প্রকাশ করার ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। আত্মতুষ্টিতে মগ্ন হয়ে, ইচ্ছে করে কোনো সতীর্থকে খাটো করে কিছু বলেননি—এমনটাই জানতে পেরেছে স্প্যানিশ গণমাধ্যম। গোল ডটকম


মন্তব্য