শিরোপার আরো কাছে বার্সা-330705 | খেলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০১৬। ১৬ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৮ জিলহজ ১৪৩৭


শিরোপার আরো কাছে বার্সা

১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



শিরোপার আরো কাছে বার্সা

সবশেষ এই সেভিয়ার বিপক্ষেই হেরেছিল বার্সেলোনা। হোক না ঘরের মাঠের ম্যাচ, তবু আশঙ্কার বাতাস উড়ছিল ন্যু ক্যাম্পের গ্যালারিতে।

৩ অক্টোবরের ওই হারের পর পালটে গেছে অনেক কিছু। ২০১৫ বিদায় নিয়ে এসেছে নতুন বছর। লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে আবার শীর্ষে ফিরেছে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদের কোচের চেয়ারে বসেছেন জিনেদিন জিদান—এমন আরো বদলের ভিড়ে বার্সেলোনার একটা জায়গায় নড়চড় হয়নি কোনো। সেভিয়ার মাঠ থেকে ২-১ গোলের হারের পর থেকে তারা অপরাজিত।

সেই দলের বিপক্ষে মুখোমুখি লড়াইয়ে দুশ্চিন্তা হওয়াটা স্বাভাবিক। সেটা আরো চেপে ধরেছিল সফরকারীরা এগিয়ে গেলে। কিন্তু মেসি নামের জাদুকর যে দলের সঙ্গী, তাদের কিসের চিন্তা! আর্জেন্টাইন তারকার দুর্দান্ত ফ্রিকিকে সমতা এবং জেরার্দ পিকের লক্ষ্যভেদে ২-১ গোলের জয় নিয়ে লা লিগার শিরোপা দৌড়ে আরো এগিয়ে গেল বার্সেলোনা। সেই সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছে ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা।

কোচ লুই এনরিকে আগেই সাবধান করে দিয়েছিলেন শিষ্যদের। শক্তিশালী রক্ষণ ও প্রতি-আক্রমণে দারুণ বোঝাপড়ার সেভিয়ার বিপক্ষে তবু সেরা একাদশ নামাননি তিনি। মাঝমাঠে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা ও ইভান রাকিটিচের জায়গায় নামিয়েছিলেন যথাক্রমে আরদা তুরান ও সের্হি রবার্তোকে। শুরু থেকে তাই সেভিয়ার মার্কিং ফুটবলে বেশ ভুগেছে স্বাগতিকরা। ২০ মিনিটে তো পিছিয়েই পড়ে কাতালানরা ভিতোলোর লক্ষ্যভেদে। বাঁ প্রান্ত থেকে বেনোয়িত ত্রিমৌলিনাসের চমত্কার ক্রস বক্সের ভেতর থেকে ভলিতে বল জালে জড়ান এই স্প্যানিশ উইঙ্গার। খেলায় ফিরতে মরিয়া বার্সেলোনা একের পর এক আক্রমণ চালিয়েছে সেভিয়ার রক্ষণে। এমনই এক আক্রমণ প্রতিহত করতে গিয়ে লুই সুয়ারেসকে ফাউল করলে ফ্রিকিক পায় বার্সেলোনা। বক্সের খানিকটা বাইরে থেকে নেওয়া সেই ফ্রিকিকে মেসি করেছেন অপূর্ব সুন্দর এক গোল। স্টেডিয়ামের দর্শকদের কথা বাদ দিন, সেভিয়া গোলরক্ষক সের্হিয়ো রিকোর হতভম্ব হয়ে জালে বল জড়ানো দেখা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না।

প্রথমার্ধ শেষ হয় ১-১ সমতায়। বিরতি থেকে ঘুরে এসেই অবশ্য লিড নেয় বার্সেলোনা পিকের লক্ষ্যভেদে। মেসি-সুয়ারেসের দারুণ বোঝাপড়ায় উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার শট করেছিলেন গোলমুখে, চলন্ত বলে স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের পায়ের আলতো ছোঁয়ায় জড়িয়ে যায় জালে। পরে দুই দলই গোলের সুযোগ তৈরি করেও ব্যর্থ হয়েছে, নির্ধারিত সময় শেষ হয় তাই বার্সেলোনার ২-১ গোলের জয়ে। তাতে আবার নতুন এক রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছে এনরিকের অপ্রতিরোধ্য বার্সেলোনা। ১৯৮৮-৮৯ মৌসুমে রিয়াল টানা ৩৪ ম্যাচ অপরাজিত থেকে যে রেকর্ড গড়েছিল, সেটা ছুঁয়ে ফেলা বার্সেলোনা সামনের ম্যাচে রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষে না হারলে রেকর্ডটা করে নেবে নিজেদের।

রেকর্ড নিয়ে মোটেও ভাবছেন না এনরিকে, চোখ তাঁর শুধুই শিরোপায়, ‘রেকর্ড আমার কাছে কিছু নয়। শিরোপা জেতাটাই বড় ব্যাপার, যদি জিততে না পারি তাহলে রেকর্ডের কোনো অর্থ নেই। মৌসুমের প্রথম দিন থেকে আমরা লড়ছি শিরোপার জন্য। এটাই আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য, আর এই মুহূর্তে আমরা ভালো জায়গায় আছি।’ ২৬ রাউন্ড শেষে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। আর রিয়াল মাদ্রিদ ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে।

‘লস ব্ল্যাঙ্কোদের’ ঘাড়ের ওপর নিঃশ্বাস ফেলছে ভিয়ারিয়াল। লেভান্তেকে ৩-০ গোলে হারানোর পর তাদের পয়েন্ট ৫২। এদিকে ঘরের মাঠেই ভ্যালেন্সিয়া ০-৩ গোলে হেরেছে অ্যাথলেতিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে। এএফপি

মন্তব্য