kalerkantho

সহযোগিতায় ছিল শুভসংঘ

আইইউবিএটিতে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা

জাকারিয়া জামান   

৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আইইউবিএটিতে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা

জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার অতিথি, আয়োজক এবং প্রতিযোগীদের একাংশ। ছবি : মো. আবু হানিফ

ঢাকার উত্তরায় তুরাগ নদ ঘেঁষে মনোরম পরিবেশে অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজিতে (আইইউবিএটি) অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০১৯। আইইউবিএটির অর্থায়নে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের সার্বিক সহযোগিতায় সফলভাবে আয়োজনটি সম্পন্ন করেছে ডিবেটিং ফোরাম অব আইইউবিএটি (ডিএফআই)। ‘একুশের চেতনায় যুক্তি দিয়ে মুক্তি’—এ স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে গত ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ক্যাম্পাসে বাংলা সংসদীয় পদ্ধতির এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। উৎসবমুখর এই প্রতিযোগিতায় দেশের  স্বনামধন্য ৩২টি স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। প্রথম দিনে ৮৫টি সেশনে ডিবেট অনুষ্ঠিত হয় এবং সেখান থেকে চারটি দলকে ওপেন রাউন্ডে সেমিফাইনালের জন্য নির্বাচন করা হয় এবং স্কুল রাউন্ডের দুটি দলকে সরাসরি ফাইনালের জন্য নির্বাচন করা হয়। ওপেন রাউন্ডে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এবং স্কুল রাউন্ডে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের অপর একটি দল। বিজয়ী দলকে ৫০ হাজার টাকা এবং রানার্স-আপ দলকে ৩০ হাজার টাকা পুরস্কার প্রদান করা হয়। সেরা বিতার্কিককে পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়েছে ১০ হাজার টাকা।

আইইউবিএটির উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুর রবের সভাপতিত্বে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন আইইউবিএটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. হামিদা আখতার বেগম। প্রধান অতিথি ছিলেন কথাসাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন। বিশেষ অতিথি ছিলেন নাগরিক টিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুন নূর তুষার, আইইউবিএটির কোষাধ্যক্ষ এবং ডিবেটিং ফোরাম অব আইইউবিএটির প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক সেলিনা নার্গিস। স্পিকার ছিলেন বিটিভির সাবেক মহাপরিচালক ম হামিদ। আইইউবিএটির সহকারী অধ্যাপক ও আন্তর্জাতিক প্রগ্রামের উপপরিচালক এবং শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. সাদেকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুরো আয়োজনটি সম্পন্ন হয়।

মন্তব্য