kalerkantho


আশা ইউনিভার্সিটিতে শুভসংঘ

অনাচার রুখতে প্রয়োজন তারুণ্যের ঐক্যবদ্ধ শক্তি

মো. জহিরুল ইসলাম   

৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



অনাচার রুখতে প্রয়োজন তারুণ্যের ঐক্যবদ্ধ শক্তি

আশা ইউনিভার্সিটিতে শুভসংঘের নতুন কমিটি গঠন বিষয়ক আলোচনায় অংশ নেওয়া কয়েকজন

একই ছাদের নিচে বেশ কয়েক বছর অথচ একজন অন্যজনকে সেভাবে চেনেন না। কোনো বিষয় নিয়ে একসঙ্গে বসাও হয়নি তেমন একটা; অথচ প্রত্যেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্রিয় কিছু সামাজিক সংগঠনের সদস্য। অবশেষে সবার একসঙ্গে বসা হলো, কথা হলো, একসঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে একমতও হলেন সবাই। গত ১২ ফেব্রুয়ারি সোমবার আশা ইউনিভার্সিটির কিছু মেধাবী শিক্ষার্থী একত্রিত হয়েছিলেন শুভসংঘের নতুন কমিটি গঠন করার বিষয়ে আলোচনা করতে। যাঁরা প্রতিটি বছর পার করেন ব্যাপক কর্মযজ্ঞের মধ্য দিয়ে। রাজধানীর শ্যামলীতে অবস্থিত এই প্রতিষ্ঠানের পরিশ্রমী ও সমাজ পরিবর্তনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ উদ্যমী শিক্ষার্থীদের সেদিন একত্রিত করেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ।

শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির একটি প্রতিনিধিদল গিয়ে কথা বলে প্রতিশ্রুতিশীল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে। এদিন আলোচনা হয় সংগঠন, এর কাজসহ বেশ কিছু বিষয় নিয়ে। ইউনিভার্সিটির ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব, ইংলিশ ক্লাব, ল ক্লাব, বিজনেস ক্লাব, ফার্মেসি ক্লাবের বন্ধুরা শুভসংঘ সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয় জানতে চান। এ সময় কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা প্রশ্নের জবাব দেন। আহ্বান করেন তরুণরা একসঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সমাজ তথা দেশ পরিবর্তনে কাজ করার জন্য। বলা হয় সব সদস্যের মতামত দেওয়ার স্বাধীনতার কথা। যেকোনো সদস্যের ভালো পরামর্শ বাস্তবায়নে কাজ করতে সচেষ্ট থাকবে সংগঠনটি। শুধু তা-ই নয়, যেকোনো সামাজিক সংগঠন ভালো কাজ করলে তাদের পাশেও থাকবে শুভসংঘ। সব ধরনের শুভ কাজে, শুভসংঘ পাশে থাকবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রতিনিধিদল। আশা ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী তানিয়া কাইয়ুম বলেন, উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের দেশ। কিন্তু এখনো অনেক জায়গায় পরিবর্তন আসাটা জরুরি। অনাচার কিংবা অবিচার হচ্ছে কোথাও কোথাও। আমরা তরুণরা চাইলে দেশ থেকে সব অনাচার দূর করে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে ভূমিকা রাখতে পারি। তরুণরাই পারে দেশকে ইতিবাচক পরিবর্তনের পথে পরিচালিত করতে। আমরা চাই তারুণ্যের ঐক্যবদ্ধ শক্তি।

আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আল-মামুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম, ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান, আশা ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী আফসানা খান, সাবিনা আহমেদ, মাহমুদা আক্তার, আবির হাসান, মাহমুদুল হাসান, তানিয়া কাইয়ুম, নসরুল হুদা, আশা হোসাইন, মো. রুবেল, নবিউল আলম, সারওয়ার হোসাইন, তিতলী, নিরব, নাজমুল হোসেন, মো মাহবুব, জীবন হাসান, ওমর ফারুক, আহসান হাবীব, ফাহাদ সাগর, জাহাঙ্গীর আলম, আল-আমীন, মিজান, সাব্বির হোসাইনসহ আরো অনেকে।


মন্তব্য