kalerkantho


বিবেক শাণিত হোক মানবতার দীক্ষায়

ইসরাইল মজুমদার স্কুল অ্যান্ড কলেজ
শুভসংঘের নতুন কমিটি

আব্দুর রাজ্জাক খান   

১৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিবেক শাণিত হোক মানবতার দীক্ষায়

ইসরাইল মজুমদার স্কুল অ্যান্ড কলেজ শাখা শুভসংঘের নতুন কমিটির বন্ধুরা

শুভ চেতনা ধারণ করেই নতুনরা আসে দেশসেবার অগ্রদূত হয়ে। শুভ কাজে শামিল হতে নতুনদের ডাক দিয়ে যায় শুভসংঘ।

আর এই ডাকে সাড়া দিয়ে গত বছরের মতো এবারও নতুন মাত্রায় গঠিত হয় উত্তরার ইসরাইল মজুমদার স্কুল অ্যান্ড কলেজ শাখা শুভসংঘের কমিটি।

৫ মার্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে একে একে হাজির হয় বিভিন্ন শ্রেণির প্রায় ২০০ শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শুভসংঘের বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে কথা বলেন শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা। শুভসংঘ নিয়ে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরও দেন তাঁরা। সাংগঠনিক সব বিষয় অবহিত করার পর শুরু হয় কমিটি গঠন। প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মো. জহিরুল ইসলাম মজুমদারকে প্রধান উপদেষ্টা এবং নাসিমা খাতুন, খায়রুল বাশার কামাল ও নাজমুন্নাহারকে উপদেষ্টা করে কমিটি গঠন করা হয়।

গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের ভোটে সভাপতি নির্বাচন করা হয় দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আব্দুর রহমান আকাশকে, সাধারণ সম্পাদক হন মো. রায়হান হোসেন। এ ছাড়া কমিটির অন্যরা হলেন—সহসভাপতি ইয়াসমিন আক্তার ও মারিয়া আক্তার, যুগ্ম সম্পাদক মামুন হোসেন ও নাসির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আল আমিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তাসনিম জান্নাত সাদিয়া, কোষাধ্যক্ষ সাদিয়া নূর মিম, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুর রহমান অপু, সমাজকল্যাণ সম্পাদক তামান্না আক্তার, ক্রীড়া সম্পাদক শ্যামলী আক্তার এবং নারীবিষয়ক সম্পাদক রুবিনা আক্তার। কার্যকরী সদস্যরা হলেন—সূচনা আক্তার, রসনী আক্তার, রেশমী আক্তার, লামিয়া আক্তার, মাসুদা আক্তার, দিপা আক্তার, উম্মে আফরিনা মুন্নি, আজহারুল ইসলাম পরান, সাদিয়া আক্তার, কাউছারী আক্তার, সাব্বির দিরিয়া, সোহাগ হোসেন ও মাহিম চৌধুরী মিরাজ।

কমিটি গঠন শেষে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মো. জহিরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘আমাদের সবারই নিজের পরিবারের, সমাজের, সর্বোপরি দেশ ও জাতির প্রতি দায়বদ্ধতা আছে। এই দায়বদ্ধতা থেকেই অন্যের সুখে-দুঃখে, বিপদে-আপদে নিজের বিবেককে সচেতন রাখতে হবে। অন্যের বিপদে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। তাহলেই আমাদের মধ্যে মনুষ্যত্ববোধ জাগ্রত হবে। ’

ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাসিমা খাতুন বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থীরা কালের কণ্ঠ শুভসংঘের মতো একটি সুন্দর সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত আছে—এটি অনেক বড় ব্যাপার। এখান থেকে তাদের মধ্যে দেশসেবার মনোভাব তৈরি হবে। শিক্ষার্থীরা সবাই শুভ কাজে সবার পাশে থেকে কাজ করবে। পড়ালেখা করে শিক্ষিত হওয়ার পাশাপাশি ভালো মানুষ হতে হবে। শুভসংঘ তাদের সেই শিক্ষাই দেবে। তারা দেশ ও জাতির কল্যাণে সর্বদা নিজেদের নিয়োজিত রাখবে। ’


মন্তব্য