kalerkantho


কালের কণ্ঠ-বাংলাদেশ বায়োলজি অলিম্পিয়াড

বিজ্ঞানমনস্কদের জয়যাত্রা

অসীম মণ্ডল ও জাকারিয়া জামান

১৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিজ্ঞানমনস্কদের জয়যাত্রা

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে রংপুর অঞ্চলের অনুষ্ঠান উদ্বোধন করছেন অতিথিরা

তারুণ্যের উচ্ছ্বাস আর নিজেদের আধুনিক বিজ্ঞানমনস্ক মানুষ হিসেবে প্রমাণ করার স্বতঃস্ফূর্ততা যেন পেয়ে বসেছিল সিরাজগঞ্জ ও দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান উৎসবে অংশ নেওয়া প্রতিযোগীদের মধ্যে। এ সময় তাদের চোখেমুখে ছিল স্বপ্নময়তা আর নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণ করার দ্যুতিময় ছাপ।

৩ মার্চ শুক্রবার সকাল হতে না হতেই শত শত প্রতিযোগী আর তাদের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে ভরে ওঠে সিরাজগঞ্জ শহরের হৈমবালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। দূর-দূরান্ত থেকে আসা প্রতিযোগী আর আমন্ত্রিত অতিথিদের উপস্থিতিতে জমকালো আর বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় আঞ্চলিক উৎসবের উদ্বোধনী পর্ব। প্রথমে জাতীয় এবং সংগঠনের পতাকা উত্তোলনের পর সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, জীববিজ্ঞানের মতো একটি জটিল বিষয় নিয়ে এ ধরনের ব্যতিক্রমী আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহের প্রশংসা করে তিনি বলেন, এ ধরনের আয়োজনে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সামাজিক অবক্ষয় থেকে দূরে রাখতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। গড়ে তুলবে আধুনিক বিজ্ঞানমনস্ক সমাজ। আধুনিক সমাজজীবনে উদার ও বিজ্ঞানমনস্ক হওয়া জরুরি। কালের কণ্ঠ ও বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড কমিটি সেই প্রশংসনীয় উদ্যোগটি নিয়েছে।

বগুড়া থেকে আসা প্রতিযোগী শারমিন সুলতানা বলেন, ‘প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হতেই হবে—এমন মানসিকতা নিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা শোভনীয় নয়। এই প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে আরো কিছুটা সাবলীল হওয়ার চেষ্টা করেছি।

নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচিতি এবং সেতুবন্ধ গড়ে উঠছে। যা ভবিষ্যতে সহায়ক হবে। ’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান কমিটির সভাপতি ডা. নিত্যরঞ্জন পাল, বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড কমিটির সহসাধারণ সম্পাদক অনিরুদ্ধ প্রামাণিক, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার হাবিবুল হাসান, প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 

রংপুর আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান উৎসব

১০ মার্চ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, রংপুর, নীলফামারী, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম এবং দিনাজপুর জেলার ৪৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৯৫৫ জন শিক্ষার্থী তিনটি ক্যাটাগরিতে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। রংপুর অঞ্চলে হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন দিনাজপুর সরকারি কলেজের সৌমিক হাসান রিয়াম ও এ এস এম আনাস ফেরদৌস। হায়ার সেকেন্ডারির প্রথম রানার-আপ দিনাজপুর সরকারি কলেজের মো. আব্দুল্লাহ আল রাফি, হলি ল্যান্ড কলেজের লুবিয়া কামরুন রয়া, রিফাত জাহান রিতী ও জেবুন নাহার ইতিমণি, পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের নুসরাত জাহান নিশু এবং সৈয়দপুর সরকারি টেকনিক্যাল কলেজের মো. আবু রায়হান সজীব। হায়ার সেকেন্ডারির দ্বিতীয় রানার-আপ বীরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের জুলফিকার রহমান তুহিন, দিনাজপুর সরকারি কলেজের শামীমা আক্তার আশা, মো. রোকনুজ্জামান রোকন, নুসরাত জাহান হক নিশি ও আনিকা আঞ্জুম, হলি ল্যান্ড কলেজের আয়েশা সিদ্দীকা, এ এস এম আবরার তানভির ত্বকী ও ফৌজিয়া ফারিহা, রংপুর লায়নস স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. আফিক হাসান ও মো. মাহাদ শাহ, পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের মো. মুত্তাসিম বিল্লাহ, মমিনুর ইসলাম ও সানজিবা আক্তার আপন, রংপুর সরকারি কলেজের মো. আনোয়ার ইব্রাহিম এবং সৈয়দপুর সরকারি টেকনিক্যাল কলেজের মো. আবু বক্কর সিদ্দীক। সেকেন্ডারি ক্যাটাগরির চ্যাম্পিয়ন আমেনা বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তামান্না সরকার, পীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দিলরুবা জাহান, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মো. সাবিত হাসান, তাহমিদ আহম্মেদ কিউট ও মো. নাফিস ফুয়াদ চৌধুরী। প্রথম রানার-আপ দিনাজপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তানজিম ফাইজা কাব্য, দিনাজপুর স্কুল অব লিবারেটসের যেরেমায়া কেভিন মণ্ডল, পঞ্চগড় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিফাত রেজওয়ান, পীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তাসনিমুন নাহার, পীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মোছা. সাদিয়া ইসলাম, স্কলার্স ইন্টা. স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইশেকা আগারওয়াল, সিঙ্গারল উচ্চ বিদ্যালয়ের আবু হেরা, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শাফায়েত শফী ও মো. আসাদুজ্জামান। সেকেন্ডারি ক্যাটাগরির দ্বিতীয় রানার-আপ আমেনা বাকী রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাহফুজা খানম, দিনাজপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তামান্না তাবাস্সুম সান্ত্বনা, সাদিয়া তাসনিম, আলেয়া পারভীন আলো, ফাবলেহা বুশরা, দিপিকা বিশ্বাস, হুমায়রা আফিফা হেভেন ও ফাহমিদা মুস্তারি বুশরা, দিনাজপুর ল্যাবরেটরি স্কুলের মো. রাকিবুল হোসেন রকি, দিনাজপুর জিলা স্কুলের ইশতিয়াক শফিক, তানভির খান, মাশরুর মুস্তাফিজ ও মো. হাফিজুর রহমান, হলি ল্যান্ড কলেজের রাদিয়া ফাইরুজ প্লাবন, পীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নিশাত শরৎ, পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের রিফা তাসনিম, পীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের স্যামী আক্তার, আপেল মাহমুদ, মো. আশিক, মো. সাব্বির, সাজিদ হোসেন, ধনঞ্জয় রায়, মাহাদি ও সৈয়দ পারভেজ, সেতাবগঞ্জ আইডিয়াল একাডেমির তানবিরুল ইসলাম, সুজাপুর মডেল হাই স্কুলের শাহরিয়ার আনার হেরা, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মো. তৌফিক ইমরোজ, দিপু রায়, মো. আহনাফ তাহমিদ, মো. রাফিন আবসার, মাহাদি জুবায়ের ও জেবা ফারিহা। জুনিয়র ক্যাটাগরির চ্যাম্পিয়ন ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আফিয়া হুমায়রা, পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সুলতানা আক্তার খুশি এবং দিনাজপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামিয়া বুশরা। জুনিয়র ক্যাটাগরির প্রথম রানার-আপ পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বুশরানা আলমি, দিনাজপুর জিলা স্কুলের আসিফ রায়হান ও প্রিতম কুণ্ডু, পঞ্চগড় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শাহাদীন সায়ীদ, রংপুর ক্যান্ট. পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের নোশিন সামিহা শর্মি এবং ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সানজিদা ইসলাম শাহ প্রত্যাশা। জুনিয়র ক্যাটাগরির দ্বিতীয় রানার-আপ আমেনা বাকী রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ফাহিম রহমান শুভ, মোকলেসুর রহমান, গোলাম মাসরুর চৌধুরী ও এম এম রাফি, রংপুর ক্যান্ট. পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের মোছা. তাহসিন তাজমিন, দিনাজপুর জিলা স্কুলের মো. নওয়াজ শরীফ, পঞ্চগড় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এম এ এইচ কে লাবিব, পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের রাফিয়া তাবাস্সুম কণা ও নহল ই রাফি, সৈয়দপুর সরকারি টেকনিক্যাল কলেজের বিজয় রায় ধীরাজ, সেন্ট ফিলিপস হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. শাফায়েত জামিল, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মো. আবির হোসাইন, মাহাদী আহমেদ, মো. মোস্তায়েনুর রহমান, মো. মোস্তাকিম ইবন আলম, উৎস দেবনাথ, মো. নূরজামান পল্লব, মো. নাফিস সাফওয়ান, মো. আবু সায়েম ও সাব্বির আহমেদ, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আমিনা আখতার স্নিগ্ধা ও তাকিয়া ফারহিন।

 

সিরাজগঞ্জ আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান উৎসব

পাবনা, বগুড়া, গাইবান্ধা, জয়পুরহাট ও সিরাজগঞ্জ জেলার ৪১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৪৩১ জন শিক্ষার্থী তিনটি ক্যাটাগরিতে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। সিরাজগঞ্জ অঞ্চলে হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন বেলকুচি কলেজের হৃদয় সূত্রধর এবং সিরাজগঞ্জ কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. সোলাইমান হোসাইন। হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরির প্রথম রানার-আপ সিরাজগঞ্জ কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সৈয়দ আসির হা-মীম বৃন্ত, জুয়েল’স অক্সফোর্ড ইন্টা. স্কুল অ্যান্ড কলেজের ফয়সাল করিম এবং বগুড়া পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. শাহাদাত হোসেন। হায়ার সেকেন্ডারিতে দ্বিতীয় রানার-আপ সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের মো. আশরাফুল ইসলাম, মহাদেব সরকার ও মো. আব্দুর রকিব, সিরাজগঞ্জ কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. আতিকুর রহমান, শাহজাদপুর সরকারি কলেজের মো. শাহিন আলম, উল্লাপাড়া বিজ্ঞান কলেজের রিফাত তাসনিয়া এবং শেরউড ইন্টা. স্কুল অ্যান্ড কলেজের জয়শ্রী রায়।

সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন সিরাজগঞ্জ কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সৌমিক রঞ্জন পাল, নকলিয়া এস এম হাই স্কুলের মো. রামিম সরকার এবং সালেহা ইশাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আরমিনা রহমান মারিয়া। সেকেন্ডারির প্রথম রানার-আপ সবুজ কানন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আবিদুর রহমান মাহিম, সালেহা ইশাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নাজিয়াত মাহমুদ এবং সরকারি আজিজুল হক কলেজের মো. সৈকত মণ্ডল। সেকেন্ডারির দ্বিতীয় রানার-আপ গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তাহনিক হামিম পৌলমী, সবুজ কানন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নাবিলা নওয়ার, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের জান্নাতুল মাওয়া মালিহা, আশিকুর রহমান ও রেজওয়ান আহমেদ, বিএল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের আবরার মিশকাত, জুয়েল’স অক্সফোর্ড ইন্টা. স্কুল অ্যান্ড কলেজের রাফিউর আলম সরণ এবং আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের আব্দুল্লাহ আল মামুন। জুনিয়র ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন স্কয়ার হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের অদিতি অনন্যা পাল, গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আহসানা ইসলাম আমিনা এবং আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাদিয়া আফরিন। জুনিয়রের প্রথম রানার-আপ গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নুসরাত জাহান তাসনিম ও ফাতেমাতুজ জোহরা মীম এবং আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের রেদওয়ানুল হক ও মনিরুল ইসলাম। জুনিয়র ক্যাটাগরির দ্বিতীয় রানার-আপ গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোছা. ফাতেমা খাতুন, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের আবিদ আহমেদ, ফারদিন আহমেদ শুভ, সজিবুর রহমান ফাহাদ ও তানজিলা করিমন অদ্রি, সিরাজগঞ্জ পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজের এস এম নাইমুর রহমান পিয়াস ও তাহসিন অহনা, সালেহা ইশাক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আফিফা আসাদ রহমান, বগুড়া জিলা স্কুলের মো. মুশফিকুর রহমান, গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তামান্না হামিদ বৃষ্টি, সিরাজগঞ্জ কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের মো. ইরফান আসিফ রহমান এবং সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তাবাস্সুম বিনতে রায়হান।


মন্তব্য