kalerkantho


যশোরে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ

ফখরে আলম   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



যশোরে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ

মনিরামপুরে ত্রাণ বিতরণ শেষে বন্যার্তদের সঙ্গে যশোরের বন্ধুরা

গৃহবধূ ফজিলা প্রতিদিন একবেলা শুধু চিঁড়া খেয়ে বেঁচে আছেন। কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ত্রাণের প্যাকেট হাতে পেয়ে তিনি কেঁদে ফেললেন। যশোরের অভিশপ্ত ভবদহের জলাবদ্ধ মনিরামপুর উপজেলার আমিনপুর গ্রামের ক্ষুধার্ত ফজিলার মতো আরো অনেকে ত্রাণ পেয়ে হাসি-কান্নায় ভরিয়ে তুললেন স্থানীয় শ্যামকুড় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়।

গত ২ আগস্ট এই কার্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া ১০০ জন দুর্গত মানুষের হাতে কালের কণ্ঠের বিশেষ প্রতিনিধি ফখরে আলম চিঁড়া, গুড়, বিস্কুট, পানির বোতল, কেক ও পাউরুটির প্যাকেট তুলে দেন। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান, কালের কণ্ঠের কেশবপুর উপজেলা প্রতিনিধি নূরুল ইসলাম খান, মনিরামপুর উপজেলা প্রতিনিধি বাবুল আক্তারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান বলেন, ‘আমার ইউনিয়নের ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। ত্রাণের খুব অভাব। কালের কণ্ঠের এই ত্রাণ দুই দিনের জন্য হলেও মানুষকে খিদের হাত থেকে রক্ষা করবে। ’ তিনি কালের কণ্ঠ শুভসংঘকে ধন্যবাদ জানিয়ে সবাইকে জলাবদ্ধ মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। ত্রাণ গ্রহণ করে জলাবদ্ধ জামলা গ্রামের কৃষক সিরাজুল ইসলাম, আমিনপুর গ্রামের আছিয়া, সুফিয়া, রাশিদা, সালেহা, মিনারা বললেন, ‘আমরা একবেলা চিঁড়া খেয়ে বেঁচে আছি। যারা আমাদের হাতে খাবার তুলে দিল, আমরা তাদের জন্য দোয়া করি।

আমরা খাবার চাই না, বাড়ি ফিরতে চাই। আমাদের বাড়িঘরের পানি সরানোর ব্যবস্থা করা হোক। ’


মন্তব্য