kalerkantho


সুনামগঞ্জ

ফসল রক্ষা বাঁধের টাকায় অন্য প্রকল্প!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



এবারও সুনামগঞ্জে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে নীতিমালা লঙ্ঘন, অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ, অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি করা হয়েছে। ফসল রক্ষা বাঁধের টাকা অন্য প্রকল্পেও লাগানো হয়েছে। গত সোমবার দুপুরে শহরের শহিদ জগৎ জ্যোতি পাঠাগার মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এসব অভিযোগ করেন ‘হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন’-এর নেতারা। সংগঠনের সভাপতি বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরুর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাধারণ সম্পাদক বিজন সেন রায়।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘চলতি বোরো মৌসুমে ফসল রক্ষা বাঁধের নির্মাণকাজ শুরুর প্রাক্কালে সঠিক সময়ে বাঁধের কাজ শুরু, তদারকিতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে ও বিগত বছরে হাওরে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের প্রকল্প বাস্তবায়ন (পিআইসি) কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত না করার দাবি জানানো হয়েছিল। এসব দাবির পক্ষে জেলা সদরসহ উপজেলায় উপজেলায় সংগঠনের উদ্যোগে মানববন্ধন করা হয়। কিন্তু কৃষকের পক্ষে আমাদের এই ন্যায্য দাবিগুলোর কোনোটাই আমলে নেওয়া হয়নি। নীতিমালা বদলিয়ে কেবল পিআইসির মাধ্যমে কাজ করানো হলেও নেওয়া হয়েছে অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প।’

বক্তারা জানান, যথাসময়ে বাঁধে মাটি না ফেলায় এখন ঝুঁকির মুখে পড়েছে বাঁধ। যে সময় আছে সে সময়ের মধ্যে বাঁধে মাটি বসবে না। বৃষ্টি হলেই নড়বড়ে বাঁধ ভেঙে যাবে। তা ছাড়া বাঁধের গোড়া থেকে মাটি কাটায় বাঁধকে আরো ঝুঁকির মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে। নীতিমালাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বাঁধ এলাকার বাইরের লোকদের পিআইসিতে যুক্তসহ অনেক অপ্রয়োজনীয় প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারের হাওর রক্ষা প্রকল্পের বরাদ্দ অপচয় করা হয়েছে। নীতিমালায় বাঁধের গ্রাউন্ড লেভেল আপার লেভেলের তিনগুণ হওয়ার কথা থাকলেও বরাদ্দকৃত অর্থ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে বেশির ভাগ বাঁধের আপার লেভেল ঠিকঠাক রেখে গ্রাউন্ড লেভেল সরু করা হয়েছে। এতে নির্মিত বাঁধগুলো নিচ থেকে ওপরে খাড়া হওয়ায় সহজেই ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বোরো ফসল রক্ষায় আবশ্যক অনেক হাওরে বাঁধ নির্মাণের প্রকল্প নেওয়া হয়নি। অথচ প্রভাবশালীদের ইশারায় তাদের স্থানীয় অনুসারীদের অবৈধ আর্থিক সুবিধা দিতে অনেক অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প নেওয়া হয়েছে; সরকারি অর্থ অপচয় করে হাওরের বোরো ফসল রক্ষা বাঁধের টাকা দিয়ে শহর রক্ষা বাঁধ ও গ্রামের যাতায়াতের রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে।



মন্তব্য