kalerkantho


বাহুবলে স্কুলছাত্রের লাশ

বোনকে প্রেমের প্রস্তাব দেওয়ায় খুন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



হবিগঞ্জের বাহুবলে স্কুলছাত্র হাবিব মিয়াকে (১২) হত্যার কথা আদালতে স্বীকার করেছেন গ্রেপ্তার শামীম মিয়া (১৮)। গত সোমবার রাতে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে তিনি হত্যাকাণ্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দেন।

জবানবন্দিতে শামীম বলেন, তাঁর বোনকে উত্ত্যক্ত করা ও প্রেমের প্রস্তাব দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি ও তাঁর দুই সঙ্গী হাবিবকে লিঙ্গ কেটে হত্যা করেন। আদালত পরিদর্শক আব্দুল বাতেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শামীম উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের খোঁজারগাঁও গ্রামের আমির আলীর ছেলে।

গত শনিবার বিকেলে উপজেলার বানিয়াগাঁও মাদরাসার তাফসির মাহফিলে যায় খোঁজারগাঁওয়ের আব্দুল হান্নানের ছেলে হাবিব মিয়া। রবিবার সকালে বানিয়াগাঁওয়ের পাশের এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মাহফিল থেকে ফেরার পথে রাতে তাকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আব্দুল হান্নান হত্যা মামলা করেন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শামীম ও তাঁর বন্ধুসহ পাঁচ সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত স্বীকার করায় শামীমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। গতকাল মঙ্গলবার সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া) নাজিম উদ্দিন জানান, শামীমের জবানবন্দির পর জুয়েল মিয়া ও শাহজাহান মিয়া নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আহত বৃদ্ধের মৃত্যু

লাখাইয়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত কুদ্দুছ মোল্লা (৬৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তিনি উপজেলার মুড়িয়াউক গ্রামের মৃত নওয়াব আলী মোল্লার ছেলে। সোমবার রাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান। লাখাই থানার ওসি মো. বজলার রহমান জানান, উপজেলার মুড়িয়াউক ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান মোল্লা ও মাসুক মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে।



মন্তব্য