kalerkantho


নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা মাঠে

আচরণবিধি লঙ্ঘন হলে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি

সোমবার মনোনয়নপত্র নিয়েছেন ১৭ জন

রাশেদুল তুষার, চট্টগ্রাম   

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আচরণবিধি লঙ্ঘন হলে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি

নির্বাচনী আচরণবিধি পর্যবেক্ষণ করতে সোমবার থেকে মাঠে নেমেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। তবে প্রথমদিনে কাউকে শাস্তির আওতায় আনা হয়নি। এদিকে নির্বাচনী কার্যক্রম সমন্বয় করতে ‘নির্বাচনী সমন্বয় কক্ষ’ খুলেছে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়।

জানা গেছে, সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্বাচনী সরঞ্জাম নিজ দায়িত্বে অপসারণের সময় রবিবার রাত ১২টায় শেষ হয়েছে। ফলে সোমবার সকাল থেকে আচরণবিধিতে নজরদারি করতে মাঠে নেমে পড়েন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী রিটার্নিং অফিসাররা। তবে গতকালও অনেক স্থানে সিটি করপোরেশনের কর্মীদের পোস্টার অপসারণ করতে দেখা যায়।

জানতে চাইলে সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনির হোসাইন খান বলেন, ‘বেশির ভাগ এলাকায় পোস্টার কিংবা অন্যান্য নির্বাচনী সরঞ্জাম অপসারণ করা হয়েছে। বাকি যেটুকু আছে আশাকরি আজ-কালের মধ্যে সরানো হয়ে যাবে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা মাঠে রয়েছেন। আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে আসন্ন সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে সোমবার চট্টগ্রামে ১৭ জন সম্ভাব্য প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৭ জন নিয়েছেন বিএনপি থেকে। বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি, জাতীয় পার্টি ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের দুজন করে সম্ভাব্য প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এছাড়া একজন করে আওয়ামী লীগ, এনপিপি, ইসলামিক ফ্রন্ট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোনয়নপত্র নিয়েছেন।

যাঁরা গতকাল ফরম নিয়েছেন : চট্টগ্রাম-২ মোহাম্মদ আতীক (ইসলামী আন্দোলন), চট্টগ্রাম-৩ মো. বেলায়েত হোসেন (বিএনপি), চট্টগ্রাম-৪ এ ওয়াই বি আই সিদ্দিকী (বিএনপি), আবুল বাশার মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন (ইসলামিক ফ্রন্ট), চট্টগ্রাম-৬ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী (আওয়ামী লীগ), চট্টগ্রাম-৭ মো. জালাল উদ্দিন (স্বতন্ত্র), মো. কুতুব উদ্দিন বাহার (বিএনপি), মোহাম্মদ নিয়ামতুল্লাহ (বিএনপি), চট্টগ্রাম-৮ মো. সেহাব উদ্দিন (কমিউনিস্ট পার্টি), চট্টগ্রাম-৯ মৃণাল চৌধুরী (কমিউনিস্ট পার্টি), চট্টগ্রাম-১০ মো. ওসমান খান (জাতীয় পার্টি), সৈয়দ কুদরত-ই-খোদা (বিএনপি), চট্টগ্রাম-১১ মো. খোশাল খান (এনপিপি), সৈয়দ কুদরত-ই-খোদা (বিএনপি), চট্টগ্রাম-১২ গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ (বিএনপি), চট্টগ্রাম-১৩ মোস্তাফিজুর রহমান (বিএনপি) ও আবদুর রব চৌধুরী টিপু (জাতীয় পার্টি)।

তফসিল ঘোষণার পর গতকাল পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট ১২৩ সম্ভাব্য প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। তবে এখনো কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি।



মন্তব্য