kalerkantho


বাল্যবিয়ে থেকে বাঁচল জেডিসি পরীক্ষার্থী

রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দিনে জেডিসি পরীক্ষা দিয়েছে, আর রাতে মেহেদিতে হাত রাঙাতো মাদরাসা ছাত্রীটি। আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষা না দিয়েই বউ হয়ে স্বামীর ঘরে চলে যেতো সে। তবে তা আর হতে দেয়নি পুলিশ। গোপনে খবর পেয়ে বাল্যবিয়েটি ঠেকিয়ে দিয়েছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাউজান পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার সুলতানপুর ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মুজিব কলোনির বাসিন্দা রহমত আলীর মেয়ে খদিজা খাতুন রাউজান দারুল ইসলাম কামিল মাদরাসা থেকে এবার জেডিসি পরীক্ষা দিচ্ছে। এর মধ্যে তার পরিবার বিয়ে ঠিক করে। মেয়েটির বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল আজ শুক্রবার। আর মেহেদি অনুষ্ঠানের আয়োজন ছিল বৃহস্পতিবার। এসব জেনে পুলিশ মেয়েটির পরিবারকে থানায় এনে মুচলেকা নেওয়ার মাধ্যমে বাল্যবিয়ের আয়োজন বন্ধ করে দেয়।

থানার এসআই সাইমুল ইসলাম বলেন, ‘বৃহস্পতিবার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেপায়েত উল্লাহ গোপন সূত্রে খবর পান জেডিসি পরীক্ষার্থীর বাল্যবিয়ের প্রস্তুতি চলছে। এরপর দুপুর দেড়টার দিকে আমি ওই বাড়িতে গিয়ে মেয়েটির বাবাকে ডেকে আনি। এরপর মাদরাসা ছাত্রীর বিয়ে প্রস্তুতির সকল আয়োজন বন্ধ করে দেওয়া হয়। তার বাবা রহমত আলীর কাছ থেকে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবেন না-মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়।’

রাউজান দারুল ইসলাম কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ রফিক আহমদ ওসমানী বলেন, ‘অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী তথা জেডিসি পরীক্ষার্থী খদিজা বৃহস্পতিবারও মাদ্রাসায় এসে পরীক্ষা দিয়েছে। শুক্রবারসহ ৬টি পরীক্ষা অবশিষ্ট রয়েছে। এর মধ্যে বিয়ের খবর পেয়ে পুলিশ এসে তার বিয়ে বন্ধ করেছে বলে শুনেছি।’



মন্তব্য