kalerkantho


পেকুয়ায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



পেকুয়ায় ছাবেকুন নাহার (৩৮) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। শ্বশুরবাড়ির লোকজন বলছেন, ওই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। আবার বাপের বাড়ির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, তাঁদের মেয়েকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। এ কারণে তিনি মারা গেছেন।

তবে পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর জানা যাবে মৃত্যুর সঠিক কারণ। অবশ্য গৃহবধূর পক্ষে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলে তা মামলা হিসেবে নেওয়া হবে। বুধবার রাতে পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়ার মনুর আলমের বাড়ি থেকে তাঁর স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ছাবেকুন নাহারের বাপের বাড়ির লোকজন অভিযোগ করেছেন, যৌতুক দাবিসহ নানা কারণে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন প্রতিনিয়ত মারধর করত ছাবেকুন নাহারকে। একইভাবে বুধবার রাতেও তাঁকে মারধর করা হয়। একপর্যায়ে ছাবেকুন নাহার মারা যান। কিন্তু তিনি গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মর্মে প্রচার চালান স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাতেই কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পেকুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান জানান, স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে খবর পাওয়ার পর ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার এবং সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা যায়নি।

পেকুয়া থানার ওসি মো. জাকির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘কী কারণে ওই গৃহবধূ মারা গেছেন, তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তাই লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর বলা যাবে মৃত্যুর সঠিক কারণ। এর পরও গৃহবধূর পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’



মন্তব্য