kalerkantho


অটোরিকশা চালকবেশী ছিনতাইকারী

বাঁশখালী প্রধান সড়কে গভীর রাতে ছিনতাই, গ্রেপ্তার ৬

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



অটোরিকশা চালকবেশী ছিনতাইকারী

ছিনতাই ঘটনার পর পর অভিযান চালিয়ে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করে বাঁশখালী থানা পুলিশ। ছবি : কালের কণ্ঠ

উপজেলার কালীপুর ইউনিয়নের ব্রাহ্মণদিঘি এলাকায় সোমবার গভীর রাতে ছিনতাই করার সময় ৬ ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি সার্কেল) মো. মফিজ উদ্দিনের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, ট্রাকচালক তোফায়েল আহমদ লোহার রডভর্তি ট্রাক নিয়ে বাঁশখালী প্রধান সড়ক হয়ে মহেশখালী যাচ্ছিলেন। তিনি কালীপুর ব্রাহ্মণদিঘি এলাকায় পৌঁছেন সোমবার রাত ৩টার দিকে। এ সময় স্থানীয় কতিপয় বখাটে একটি অটোরিকশা দিয়ে ট্রাকের গতিরোধ করে চালক তোফায়েল আহমদের কাছ থেকে ৩ হাজার ৮২৫ টাকা ছিনতাই করে। এর পর আরো কয়েকটি গাড়ি গতিরোধ করে ছিনতাই করে। এ খবর পেয়ে বৈলছড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কফিল উদ্দিন দ্রুত থানা পুলিশকে জানান। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে ৬ ছিনতাইকারীকে। ছিনতাইকারীরা অটোরিকশাচালক। রাতে সুযোগ বুঝে এরা ছিনতাই করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে দা, ছোরা, মোবাইল ফোনসেট ও নগদ টাকা জব্দ করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো কালীপুর ইউনিয়নের ওমর আলীর ছেলে রাফি (২৩), মোস্তফা আলীর ছেলে তারেক (২৮), বৈলছড়ি ইউনিয়নের নুরুল ইসলামের দুই ছেলে মো. ফয়সাল (১৯) ও মো. রাসেল (২১), শের আলীর ছেলে ছমিউদ্দিন (১৮), খালেদের ছেলে মিনহাজ (২২)। ট্রাকচালক তোফায়েল বাদী হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার : এদিকে পুলিশ সরল ইউনিয়নের কাহারঘোনা এলাকায় অভিযান চালিয়ে যৌতুক আইনের ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি মো. শফি আলমকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি ওই এলাকার মৃত ছালেহ আহম্মদের ছেলে।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামাল হোসেন বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃতরা পেশাদার ছিনতাইকারী। তাদের আচরণ ও ব্যবহার দেখে সব স্পষ্ট ধরা পড়ে। তারা ছিনতাইয়ের ঘটনা স্বীকারও করেছে। এদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এছাড়া ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

 

 

 



মন্তব্য