kalerkantho


সীতাকুণ্ড

আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে মৃত ভেবে ফেলে গেল দুর্বৃত্তরা

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে মৃত ভেবে ফেলে গেল দুর্বৃত্তরা

এক আওয়ামী লীগ নেতাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সীতাকুণ্ড উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের দোয়াজীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে এলাকাবাসী। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকাল  সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ি থেকে বাজারে যাওয়ার সময় সড়কে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা কয়েকজন অস্ত্রধারী মুরাদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ জাহেদুল ইসলাম আরমানের (৩৮) ওপর হামলা করে। এরা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মৃত ভেবে পাশের ডোবায় ফেলে দেয় তাঁকে। পরে দুষ্কৃতকারিরা চলে গেলে এলাকাবাসী তাঁকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে। পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে জড়িত সন্দেহে কামাল উদ্দিন (২৬) নামে একজনকে আটক করেছে।

আহত আরমানের বাবা মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলাকার রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকা কিছু বখাটে যুবক কুপিয়েছে। আরমানের দুই হাত ও শরীরের বিভিন্ন অংশ গুরুতর জখম হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।’ এ ঘটনায় তিনি মামলা করবেন বলে জানান।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক হামিদুল ইসলাম বলেন, ‘আরমানকে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মুমূর্ষু অবস্থায় আনা হয়। তাঁর অবস্থা গুরুতর।’

মুরাদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ হোসেন নিজামী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারে যাওয়ার পথে রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকা স্থানীয় কিছু যুবক আরমানকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।’ এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ারুল ইসলাম খান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতা আরমানকে হত্যার চেষ্টায় জড়িত সন্দেহে কামাল নামে একজনকে আটক করেছি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



মন্তব্য