kalerkantho


প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় বিশৃঙ্খলা এড়াতে নানা পদক্ষেপ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার চট্টগ্রামের জনসভায় বিশৃঙ্খলা এড়াতে নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আগামী ২১ মার্চ পটিয়ায় ওই জনসভা অনুষ্ঠিত হবে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি চট্টগ্রামে কয়েকটি বড় অনুষ্ঠানে দলের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাদের সামনে চরম বিশৃঙ্খলা হয়েছে। এসব বিষয় মাথায় রেখে পটিয়ার জনসভার জন্য দলের পক্ষ থেকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে আছে জনসভাস্থলের যেকোনো প্রচারমাধ্যমে শুধু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ছবি ব্যবহার করা যাবে। এ ছাড়া তাঁদের বাইরে অন্য কারো নামে স্লোগান দেওয়া যাবে না। তবে এসব নির্দেশনা জনসভাস্থলের বাইরে প্রযোজ্য হবে না।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে স্মরণকালের বৃহত্তম জনসভা করার বিভিন্ন প্রস্তুতি নিচ্ছি। এতে তিন থেকে পাঁচ লাখ লোকের সমাগম হবে। মাঠের বাইরে পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় জনসভার মাইক থাকবে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জনসভার দিন নগরমুখী যানবাহন চন্দনাইশের দোহাজারী-আনোয়ারা বাইপাস সড়ক দিয়ে চলবে। পটিয়ার দিকে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া জনসভার গাড়িগুলো পটিয়ার ইন্দ্রপোল থেকে কমলমুন্সিহাট পর্যন্ত সড়কে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে ঘিরে চট্টগ্রামে দল ও সহযোগী-ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের স্থানীয় নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামীকাল রবিবার বিকেল ৩টায় নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউট হলে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরি বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিত থাকতে অনুরোধ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।



মন্তব্য