kalerkantho


মোড়ে মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন

দ্বিতীয় রাজধানী ডেস্ক   

৮ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



মোড়ে মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার

চট্টগ্রাম নগর আ. লীগের আলোচনাসভায় সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ নানা আয়োজনে বিভিন্ন স্থানে পালিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ক্রীড়া ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, আলোচনা সভা, সেমিনারসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। বের করা হয় শোভাযাত্রা। শহর-গ্রামের অলিগলি, মোড়ে মোড়ে দিনভর মাইকে প্রচার হয় বঙ্গবন্ধুর সেই কালজয়ী ঐতিহাসিক ভাষণ। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধির পাঠানো খবরে :

নগর আওয়ামী লীগ : নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি বাঙালি ও বাংলাদেশকে বিশ্বে নতুন পরিচয় দিয়েছে।’

বুধবার বিকেলে জেলা পরিষদ মার্কেট চত্বরে নগর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী সভায় সভাপতিত্ব করেন। এর আগে সকালে দারুল ফজল মার্কেটের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, মাইকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে মাল্যদান করা হয়।ৎল্ল

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় : সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার করা হয়। উপ-উপাচার্য ড. শিরীণ আখতার বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এর পর বঙ্গবন্ধু পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা পুষ্পমাল্য অর্পণ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় অনুষদ ডিন, শিক্ষক সমিতির নেতা, রেজিস্ট্রার, হল প্রভোস্ট, বিভাগীয় সভাপতি ও ইনস্টিটিউট-গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টর, অফিস প্রধান, অফিসার সমিতি ও ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) : আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এর আগে একটি শোভাযাত্রা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে ক্যাম্পাসের গোল চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। ড. মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন ড. রণজিৎ কুমার সূত্রধর, ড. মো. আব্দুর রহমান ভূঁইয়া, ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, ড. মোহাম্মদ মশিউল হক, ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফিন, নাহিদা সুলতানা, মোহাম্মদ ফজলুর রহমান, প্রকৌশলী অচিন্ত্য কুমার চক্রবর্তী, মো. জামাল উদ্দিন ও শিক্ষার্থী রাফসান জানি জিশান।

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব  : কর্মসূচির মধ্যে ছিল সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাতির জনকের ৭ই মার্চের ভাষণ সম্বলিত ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনা। এছাড়া সকাল ৭টা থেকে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ মাইকে প্রচার করা হয়। পরে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সভাপতি কলিম সরওয়ার। বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, সাবেক সভাপতি আলী আব্বাস ও যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় : সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। এরপর শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম এবং ফুড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

খাগড়াছড়ি : শোভাযাত্রা বের করেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সকাল ১১টায় দলের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে শোভাযাত্রা বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে টাউনহলের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। এ সময় পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী, নুরনবী চৌধুরী, কল্যাণমিত্র বড়ুয়া, অ্যাডভোকেট আশুতোষ চাকমা, মংক্যচিং চৌধুরী, মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, খোকনেশ্বর ত্রিপুরা, শতরূপা চাকমা, পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ উপলক্ষে জেলা শিশু সদনে বিশেষ খাবার ব্যবস্থা করে জেলা আওয়ামী লীগ।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের ব্যানারে পৃথকভাবে দিবসটি পালন করা হয়। এতে শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের সাবেক চেয়ারম্যান যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এস এম শফি, সাময়িক বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলম, প্রচার সম্পাদক অধ্যক্ষ সমীর দত্ত চাকমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

চকরিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাষণের লিফলেট বিতরণ : ইউনেস্কোর স্বীকৃতিপ্রাপ্ত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের বজ্রকণ্ঠের ভাষণ সম্বলিত ১০ হাজার লিফলেট (প্রচারপত্র) বিতরণ করেছে চকরিয়ার মাতামুহুরী ছাত্রলীগ। বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত উপকূলীয় সাত ইউনিয়নের ১১ স্কুল, ৪ মাদরাসা এবং একটি কলেজে এসব লিফলেট বিতরণ করা হয়।

মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হুমায়ন কবির চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘উপকূলীয় এলাকার ১৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অন্তত ১০ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে এ লিফলেট বিতরণ এবং ভাষণ পাঠ করা হয়।’

নোয়াখালী : জেলা আওয়ামী লীগ শোভাযাত্রা ও সমাবেশ করেছে। কার্যালয়ের সামনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিমের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপি। আবদুল ওয়াদুদ পিন্টুর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন আবদুল মমিন বিএসসি, একেএম সামছুদ্দিন জেহান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, পৌর মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেল, অ্যাডভোকেট আতাউর রহমান নাছের, ইমন ভট্ট, একরামুল হক বিপ্লব, জেলা ছাত্র লীগ সভাপতি আসাদুজ্জামান আরমান প্রমুখ। এদিকে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শোভাযাত্রা বের করা হয়। এর পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়।

রাউজান : উপজেলা আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা মুন্সিরঘাটাস্থ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ। বশির উদ্দিন খানের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন আনোয়ারুল ইসলাম, ফৌজিয়া খানম মিনা, আলমগীর আলী, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, জমির উদ্দিন পারভেজ, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান বি এম জসিম উদ্দিন হিরু, সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, নুরুল আমিন, সারজু মো. নাছের, সুমন দে, শওকত হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম, আহসান হাবিব চৌধুরী হাসান, জিল্লুর রহমান মাসুদ, হাসান মো. রাসেল, জিয়াউল হক রোকন প্রমুখ।

এদিকে রাউজান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন, দেয়ালিকা উন্মোচন ও আলোচনা সভা কলেজের সাজেদা কবির চৌধুরী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ। উদ্বোধক ছিলেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিম নেওয়াজ চৌধুরী। আরমান সিকদারের সভাপতিত্বে ও ফয়সাল মাহামুদের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অধ্যাপক প্রদীপ কুমার বড়ুয়া, অধ্যাপক আব্বাস উদ্দিন, অধ্যাপক সাইফুল হক, অধ্যাপক অর্পণ ব্যানার্জি, অধ্যাপক তসলিম উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি সুমন দে, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শওকত হোসেন প্রমুখ।



মন্তব্য