kalerkantho


পেকুয়ায় অস্ত্র উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও চকরিয়া প্রতিনিধি   

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



পেকুয়ায় র‌্যাবের একটি দল অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে। এ সময় দুই ‘কারিগর’কে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল সোমবার বিকেল চারটার দিকে উপজেলার টৈটং ইউনিয়নের পশ্চিম নাপিতখালী পাড়ার ইজিবাইক টমটম-রিকশা গ্যারেজ কাম ইজিলোডের দোকান থেকে এসব অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন টৈটং ইউনিয়নের পশ্চিম টৈটং এর নাপিতখালী পাড়ার আহমদ হোসেনের ছেলে আবদুল কাদের (৩০) ও একই এলাকার জাফর আলমের ছেলে ছৈয়দ নূর (৩৮)।

তবে র‌্যাবের পক্ষ থেকে মোবাইলে দেওয়া খুদে বার্তায় দাবি করা হয়েছে, অস্ত্র উদ্ধারের স্থানটি অস্ত্র তৈরির কারখানা এবং গ্রেপ্তারকৃতরা অস্ত্র তৈরির কারিগর। ওই কারখানা থেকে ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র, অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম ও বিপুল পরিমাণ গুলিও উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল সোমবার বিকেলে র‌্যাবের একটি দল ভ্যানযোগে এসে নাপিতখালী পাড়ার ইজিবাইক টমটম ও রিকশার গ্যারেজের সামনে নামে। এর পর র‌্যাব সদস্যরা গ্যারেজটি চতুর্দিকে ঘিরে ভেতরে অভিযান চালান। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার করে। এ সময় গ্রেপ্তার করা হয় দুজনকে। তাঁরা ওই দোকানে অবস্থান করছিলেন।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন দাবি করেছেন, যে গ্যারেজে র‌্যাব সদস্যরা অভিযান চালিয়েছেন ওই গ্যারেজ সবসময় খোলা থাকে। হয়তো পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুজনকে ফাঁসাতে সেখানে অস্ত্র ঢুকিয়ে দিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে খবর দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে র‌্যাব কক্সবাজার ক্যাম্পের ইনচার্জ মেজর মো. রুহুল আমিন কালের কণ্ঠকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল পেকুয়ার নাপিতখালীতে অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়ে দেশিয় তৈরি ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র, বিপুল পরিমাণ গুলি ও অস্ত্র তৈরির নানা সরঞ্জাম উদ্ধার করে। এ সময় গ্রেপ্তার করা হয় দুজনকে। তাঁরা অস্ত্র তৈরির কারিগর বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছেন।



মন্তব্য