kalerkantho


জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদ অব্যাহত

জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও শাস্তি দাবি

দ্বিতীয় রাজধানী ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও শাস্তি দাবি

দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে গতকাল সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরে গণজাগরণ মঞ্চের মশাল মিছিল। ছবি : কালের কণ্ঠ

জনপ্রিয় লেখক, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে সোমবারও বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচিতে ছিল মশাল মিছিল, মানববন্ধন, সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল। এছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এক ঘণ্টা কর্মবিরতি কর্মসূচি পালন করেছে। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধির পাঠানো খবরে :

গণজাগরণ মঞ্চ, চট্টগ্রাম : সোমবার সন্ধ্যায় নগরের চেরাগি পাহাড় চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে মশাল মিছিল বের করা হয়। আবৃত্তিকার রাশেদ হাসানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা কাজী নুরুল আবছার, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, গণজাগরণ মঞ্চ চট্টগ্রামের সদস্য সচিব ডা. চন্দন দাশ ও সমন্বয়ক শরীফ চৌহান, কবি কামরুল হাসান বাদল, উদীচী চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক শীলা দাশগুপ্তা, যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি আমির হোসেন, সাংবাদিক প্রীতম দাশ, আতিক রিয়াদ প্রমুখ।

সমাবেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন সংহতি জানায়। পরে একটি মশাল মিছিল চেরাগি পাহাড় মোড় থেকে শুরু হয়ে আন্দরকিল্লা, লালদিঘি হয়ে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিক সমিতি।   ছবি : কালের কণ্ঠ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় : মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতি। সোমবার  দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে বুদ্ধিজীবী চত্বরের সামনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বার বার দেশের মুক্তমনা বুদ্ধিজীবী, লেখক, ব্লগার ও সাংবাদিকদের ওপর হামলা হচ্ছে। এসব ঘটনার বিচার সঠিকভাবে না হওয়ায় আজ জাফর ইকবালের মতো প্রগতিশীল ব্যক্তিদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ছে হায়েনারা। এরা বাংলাদেশকে আবার মেধাশূন্য করতে চায়। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে এদের শাস্তি নিশ্চিত করতে পারলে পরবর্তীতে কেউ এমন কাজ ঘটাতে সাহস করবে না।

চবি সাংবাদিক সমিতির উপদেষ্টা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘জাফর ইকবাল একজন ব্যক্তি নন, একটি প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের ওপর হামলা করা হয়েছে। তিনি তরুণ সমাজকে প্রগতিশীল চিন্তাধারায় মুক্তিবুদ্ধির চর্চায় আকৃষ্ট করছেন। নিরাপত্তা আসলে প্রকৃত সমাধান নয়। নিরাপত্তা দিয়ে একজন বুদ্ধিজীবী ও মুক্তচিন্তার ধারকের পথ সীমিত করার পক্ষে আমি নই। তবু তাঁর নিরাপত্তায় পুলিশের কোনো অবহেলা থাকলে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানাই।’

সমিতির সভাপতি আশহাবুর রহমান শোয়েবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, দর্শন বিভাগের শিক্ষক মো. মাসুম আহমদ, ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আইরিন আক্তার, ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ফকরুল ইসলাম প্রমুখ।

শিক্ষকদের কর্মবিরতি : হামলাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এক ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করেছেন শিক্ষকরা। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করা হয়। রবিবার জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধনও করেন শিক্ষকরা।

চবি শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সমপাদক মাধব দীপ বলেন, ‘মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যারের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এক ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করেছেন। তাঁরা সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত সকল ধরনের একাডেমিক কাজ থেকে বিরত ছিলেন।’

খাগড়াছড়িতে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের বিক্ষোভ মিছিল।   ছবি : কালের কণ্ঠ

খাগড়াছড়ি : ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং জনগণের জানমালের নিরাপত্তার দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে। সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জেলা কমিটির উদ্যোগে সোমবার সকালে শহরের শাপলা চত্বর এলাকা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বক্তব্য দেন বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা কমিটির সদস্য শাহাদাৎ হোসেন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের জেলা আহ্বায়ক কবির হোসেন, কলেজ কমিটির আহ্বায়ক স্বাগতম চাকমা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলার অর্থ হল দেশের বুদ্ধিজীবী ও মুক্তমনা মানুষের ওপর হামলা। বক্তারা অবিলম্বে হামলার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দেওয়ার দাবি জানান।

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন।     ছবি : কালের কণ্ঠ

নোয়াখালী : মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) শিক্ষক সমিতি। সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা হামলায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও শাস্তি দাবি করেন। নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম গোলাম মোস্তাফার সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এম অহিদুজ্জামান। আরো বক্তব্য দেন সমাজবিজ্ঞান ও মানবিক অনুষদের ডিন ড. সৈয়দ আতিকুল ইসলাম, ছাত্র নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক আফসানা মৌসুমী, ফার্মেসি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেলিম হোসেন, ভাষাশহীদ আবদুস সালাম হলের প্রভোস্ট ড. মো. গাজী মহসীন, প্রক্টর মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান, শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক ওয়ালিউর রহমান বিপুল, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মো. মোখলেস উজ জামান প্রমুখ।

উপাচার্য বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। তাঁর ওপর হামলা মুক্তিযুদ্ধের পতাকাকে সমুন্নত রাখার বিরুদ্ধে অপচেষ্টা। শিক্ষক সমাজের ওপর এমন ন্যক্কারজনক হামলা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের ওপর হামলা স্বরূপ।’

পটিয়ায় নাগরিক সমাজ ও বর্ণরেখা খেলাঘর আসরের মানববন্ধন।   ছবি : কালের কণ্ঠ

পটিয়া : চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে পটিয়া নাগরিক সমাজ ও বর্ণরেখা খেলাঘর মানববন্ধন করে। সোমবার বিকেলে পটিয়া পৌর সদরের পোস্টঅফিস চত্বরে মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা হামলায় জড়িত ও মদদদাতাদের দ্রুত চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

সমাবেশে বক্তব্য দেন পটিয়া সনাক টিআইবির সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট কবিশেখর নাথ পিন্টু, পটিয়া ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সামশুল আলম বাবু, সৃজনশীল সাহিত্যগোষ্ঠী মালঞ্চের সভাপতি অধ্যাপক অজিত কুমার মিত্র, শিক্ষক নেতা শ্যামল কান্তি দে, পটিয়া প্রেস ক্লাব সভাপতি এস এম এ কে জাহাঙ্গীর ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল হাকিম রানা, অধ্যাপক অভিজিত বড়ুয়া মানু, সাংবাদিক হারুনর রশিদ ছিদ্দিকী ও আবদুর রাজ্জাক, শিক্ষক শহীদুল ইসলাম, সংস্কৃতিকর্মী সোহেল মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, সাংবাদিক আহমদ উল্লাহ, টিআইবির এরিয়া ম্যানেজার জসিম উদ্দিন, বর্ণরেখা খেলাঘর আসরের সভাপতি ডা. জয়দত্ত বড়ুয়া সুমন, গৌতম চৌধুরী, রশীদ এনাম, আলমগীর আলম, আবু তৈয়ব সোহেল, পলাশ রক্ষিত, নয়ন শর্মা, আনিছুর রহমান প্রমুখ।



মন্তব্য