kalerkantho


সুবর্ণচরে মেয়েদের ফুটবল প্রতিযোগিতা

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



সুবর্ণচরে মেয়েদের ফুটবল প্রতিযোগিতা

গতকাল নোয়াখালীর উপকূলীয় এলাকা সুবর্ণচরে মেয়েদের ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

উপকূলীয় সুবর্ণচর উপজেলায় বুধবার হয়ে গেল মেয়েদের প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নারী-পুরুষ বৈষম্য দূর করে সমতা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘নিজেরা করি’ ও ‘উদ্যমে উত্তরণে শত কোটি বাংলাদেশ’ যৌথভাবে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের উইমেনস ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আকতার কিরণ উপস্থিত থেকে খুদে খেলোয়াড়দের উৎসাহিত করেন।

সকাল ১০টায় চরজব্বর ইউনিয়নের পাঙ্খারবাজার জুনিয়র হাইস্কুলের মাঠে এ প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় ছয়টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনূর্ধ্ব-১২ বছর বয়সী মেয়েদের নিয়ে গঠিত ২৮ সদস্যের দুটি ফুটবল দল (লাল দল ও কালো দল) এতে অংশ নেয়। ৩০ মিনিট করে ৬০ মিনিটের এ খেলায় কোনো পক্ষ গোল করতে সক্ষম হয়নি। পরে উভয় দলকে বিজয়ী ঘোষণা করে পুরস্কৃত করা হয়।

পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাচিত নারী সদস্য মাহফুজা আখতার কিরণ, নিজেরা করির সমন্বয়কারী ও উদ্যমে উত্তরণে শত কোটি, বাংলাদেশের সমন্বয়ক খুশী কবির, নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ কে এম জহিরুল ইসলাম, নিজেরা করির গভর্নিং বডির সদস্য সালমা চৌধুরী প্রমুখ। প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণকারী প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে মেডেল পরিয়ে দেন অতিথিরা।

ফিফার সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেন, ‘নারী-পুরুষের মধ্যকার বিদ্যমান বৈষম্য দূর করে সমাজের নানা কাজে নারী বিশেষ করে মেয়েদের অংশগ্রহণকে উদ্বুদ্ধ করতে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এ ধরনের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তাছাড়া ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও ফুটবলসহ বিভিন্ন ক্রীড়াক্ষেত্রে নিজেদের যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলে বিদেশে দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনার সুযোগ রয়েছে।’

নিজেরা করির সমন্বয়কারী খুশী কবির বলেন, ‘নিজেরা করি ও উদ্যমে উত্তরণে শতকোটি, বাংলাদেশের’ আয়োজনে প্রত্যন্ত চরের মেয়েরা আজ যে ক্রীড়া নৈপুণ্য দেখিয়েছে তা এক কথায় অসাধারণ। আর তাদের ক্রীড়া নৈপুণ্য দেখতে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষজন বিশেষ করে পুরুষরা দর্শক হিসেবে দাঁড়িয়ে যে উৎসাহ দিয়েছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। পুরুষেরা যদি এভাবে মেয়েদের পাশে থাকেন, উৎসাহ দেন; তাহলে মেয়েরা অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’

খেলায় সকালের কড়া রোদের মধ্যেও বিপুলসংখ্যক শিশু-নারীসহ সব বয়সী দর্শক এ ফুটবল প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন।



মন্তব্য