kalerkantho


‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন চুয়েটের পাঁচ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) প্রদত্ত ২০১৫ ও ২০১৬ সালের ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেয়েছেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) পাঁচ শিক্ষার্থী। তাঁরা হলেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের মো. শাহ জালাল মিশুক, পুরকৌশল বিভাগের অপু চন্দ্র দেবনাথ, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের জিতু প্রকাশ ধর, পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ইসতিয়াক মোহাম্মদ খান এবং স্থাপত্য বিভাগের সারাহ্ বিনতে হক। স্বর্ণপদকপ্রাপ্তরা সবাই কৃতিত্বের সাথে চুয়েট থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করে স্ব স্ব বিভাগে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।

গতকাল বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কার্যালয়ে চুয়েটের পক্ষ থেকে তাঁদের সংবর্ধনা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে স্বর্ণপদকপ্রাপ্তদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল ইসলাম, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের অধ্যাপক ড. রণজিৎ কুমার সূত্রধর, পুরকৌশল অনুষদের অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রহমান ভূঁইয়া, তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল অনুষদের অধ্যাপক ড. কৌশিক দেব, যন্ত্রকৌশল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহম্মদ, পুরকৌশল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মো. মইনুল ইসলাম, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. কাজী দেলোয়ার হোসেন, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফিন, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আসিফুল হক, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী প্রমুখ।

উপাচার্য রফিকুল আলম স্বর্ণপদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘এ অর্জন চুয়েট পরিবারকে গৌরবান্বিত করেছে। বর্তমান ছাত্রছাত্রীরা এর মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হবে। ভবিষ্যতেও সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চুয়েট প্রশাসন নিরলসভাবে কাজ করে যাবে।’

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হলে ২০১৫ ও ২০১৬ সালে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ে অনুষদভিত্তিক সর্বোচ্চ নম্বর/সিজিপিএপ্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ওই স্বর্ণপদক বিতরণ করেন।


মন্তব্য