kalerkantho


সাতকানিয়ায় ৫১ হাজার ইয়াবা জব্দ, গ্রেপ্তার ৩

সাতকানিয়া প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



সাতকানিয়ায় ৫১ হাজার ইয়াবা জব্দ, গ্রেপ্তার ৩

সাতকানিয়ায় যাত্রীবাহী বাসের লাইট বক্স এবং পিকআপের তেলের ট্যাংক থেকে ৫১ হাজার ইয়াবা জব্দ করেছে দোহাজারী হাইওয়ে থানা পুলিশ। এ সময় ইয়াবা পাচারের সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া অংশে দোহাজারী হাইওয়ে থানার সামনে চেকপোস্ট স্থাপন করে বাস ও পিকআপে তল্লাশি চালিয়ে এসব ইয়াবা জব্দ করা হয়।

পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন রাতে কক্সবাজার থেকে ইউনিক পরিবহনের

যাত্রীবাহী বাস এবং পিকআপযোগে ইয়াবা পাচারের বিষয়ে গোপন সংবাদ পায় দোহাজারী হাইওয়ে থানা পুলিশ। এর পর ওসি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ তাত্ক্ষণিকভাবে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া অংশে দোহাজারী হাইওয়ে থানার সামনে অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে যানবাহন তল্লাশি শুরু করে। এ সময় দ্রুতগামী একটি পিকআপ (নং-গাজীপুর-ম-০৫-০০০১) এলে থামানো হয়। পরে পিকআপে তল্লাশি চালিয়ে তেলের ট্যাংকের বর্ধিত অংশে বিশেষ কৌশলে নেওয়া ৩০ হাজার ইয়াবা জব্দ করা হয়। পরে পিকআপের চালক ও হেলপারকে গ্রেপ্তার এবং গাড়িটি আটক করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন ফেনী সদর থানার পাঁচগাছিয়া বাতানিয়ার মইশঅলা বাড়ির মৃত নুর মিয়ার ছেলে মো. সেলিম মিয়া (৪০) এবং কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং হিজলিয়া পাড়ার মৃত শামসুল আলমের ছেলে মো. মফিজ মিয়া (৪৫)।

এদিকে ঘটনার কিছুক্ষণ পর ইউনিক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসকে (নং-চট্টমেট্রো-ব-১১-০৮৩৩) সিগন্যাল দিয়ে থামানোর সাথে সাথে বাসের সুপারভাইজার মো. রবিউল আলম প্রকাশ হাসান পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তখন পুলিশ তাঁকে ধাওয়া করে গ্রেপ্তার করে। পরে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে গাড়িতে তাঁর হেফাজতে ইয়াবা থাকার কথা স্বীকার করেন। এরপর তাঁর দেখানো মতে গাড়ির ছাদের লাইটবাক্সে বিশেষ কায়দায় নেওয়া ২১ হাজার ইয়াবা জব্দ করা হয়। একই সাথে যাত্রীবাহী বাসটিও আটক করা হয়।

দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, উদ্ধারকৃত ইয়াবার বিষয়ে সাতকানিয়া থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


মন্তব্য