kalerkantho


৬০ বছর পূর্তি পুনর্মিলনী

ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজের প্রশংসা সেনা ও বিমানবাহিনী প্রধানের

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজের প্রশংসা সেনা ও বিমানবাহিনী প্রধানের

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক গতকাল ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজের হীরক জয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কেক কাটেন। ছবি : আইএসপিআর

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে অবস্থিত ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজের ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে কলেজটির শিক্ষাব্যবস্থার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বিমানবাহিনীর প্রধানরা। এই কলেজের ক্যাডেটরাই দেশের গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরে অধিষ্ঠিত হয়ে দক্ষতার সঙ্গে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তাঁরা। গত বৃহস্পতিবার থেকে কলেজের তিন দিনব্যাপী হীরক জয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান শুরু হয়।

গতকাল শুক্রবার অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন প্রধান অতিথি ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক। তিনি কলেজ প্রাঙ্গণে পৌঁছালে তাঁকে অভ্যর্থনা জানান কলেজের অধ্যক্ষ কর্নেল মো. রকিব উদ্দিন খান। এ সময় প্রধান অতিথি প্যারেড পরিদর্শন করেন। পরে অ্যাথলেটিক্স গ্রাউন্ডে কলেজের ক্যাডেটরা মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। প্রধান অতিথি কেক কেটে দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের দৈনিক পূর্বকোণের সম্পাদক ডা. রমিজ উদ্দিনসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

গতকাল অনুষ্ঠানে থ্রিডি মুভি, ব্যান্ড সংগীত, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, লেজার শো, কলেজের প্রাক্তন ক্যাডেটদের অংশগ্রহণে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া খেলাধুলা, বাংলা অপেরা ও নৃত্য পরিবেশন করা হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আবু এসরার। তিনি ফৌজিয়ানদের ব্যাপক প্রশংসা করেন এবং বিমানবাহিনীর চাকরিতে যোগ দিতে তাদের উৎসাহিত করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অ্যাডজুট্যান্ট জেনারেল মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান, এএফডাব্লিউসি, পিএসসি এবং কেন্দ্রীয় গভর্নিং বডি, ওল্ড ফৌজিয়ান অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান হেলাল মোখলেছ আলম, কলেজের অধ্যক্ষ কর্নেল মো. রকিব উদ্দিন খানসহ প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

জাঁকজমকপূর্ণ এই অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড সোলসের সদস্যরা। এ ছাড়া ওল্ড ফৌজিয়ানদের দ্বারা কমেডি ও কৌতুক পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা ওল্ড ফৌজিয়ানদের সম্মিলন ও স্মৃতিচারণা এক আনন্দঘন মধুর ও সুখময় পরিবেশ সৃষ্টি করে।



মন্তব্য