kalerkantho


গাছের ডাল ভেঙে চোরের মৃত্যু!

ঝগড়ার জেরে তরুণীর গায়ে গরম পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



রান্না নিয়ে ঝগড়ার জেরে সাবেকুন নাহার নামে এক তরুণীকে গায়ে গরম পানি ঢেলে দিয়েছেন এক নারী। মঙ্গলবার সকালে নগরীর হালিশহর থানাধীন ঈদগাহ বড় পুকুর পাড়ের মজু মেম্বারের ভাড়াবাসায় এ ঘটনা ঘটে। সাবেকুন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন স্বজনদের বরাত দিয়ে জানান, মজু মেম্বারের পাঁচটি ভাড়াঘরের লোকজন দুটি চুলায় রান্নার কাজ করে থাকে। আগেভাগে রান্না করা নিয়ে ভাড়াটিয়াদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হয়। মঙ্গলবার সকালে রান্না করা নিয়ে আয়েশার সঙ্গে বচসা হয় নাহারের। এর জেরে আয়েশা চুলার গরম পানি নাহারের গায়ে ঢেলে দেন। গরম পানিতে নাহারের শরীরের ১৮ শতাংশ ঝলসে গেছে বলে জানান এএসআই আলাউদ্দিন। তবে তিনি এখন আশঙ্কামুক্ত। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আয়েশাকে আটক করা হয়েছে বলে হালিশহর থানা পুলিশ নিশ্চিত করেছে।

এদিকে গাছ বেয়ে দোতলা বাড়িতে উঠতে গিয়ে ঢাল ভেঙে চোর মারা গেছে। মঙ্গলবার ভোররাতে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর উপজেলার উত্তর বুড়িশ্চরে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় তিন নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আমির আব্বাস চৌধুরী জানান, হালদা নদীর পাড়সংলগ্ন গোমস্তা বাড়ির নুরুল আবসারের দোতলা বাড়িতে চুরি করতে আমগাছ বেয়ে উঠেছিল চোর। বাড়ির লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে ‘ডাকাত’, ‘ডাকাত’ বলে চিৎকার শুরু করে। এ সময় চোর ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে পড়ে যাওয়ার সময় ছাদের রেলিংয়ের সঙ্গে ধাক্কা খায়। পড়ার সময় মাথা নিচের দিকে ছিল। এরপর গুরুতর আহত অবস্থায় পুলিশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠায়।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, অজ্ঞাত পরিচয়ের চোরকে রাত পৌনে দুটার দিকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন মদুনাঘাট পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা। এরপর তাকে ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তার মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।


মন্তব্য