kalerkantho


আমেরিকার ওষুধ তৈরি হয় নোয়াখালীতে!

নকল কারখানায় র‌্যাবের অভিযান আটক ৬, বিভিন্ন মেয়াদে সাজা

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



সদর উপজেলার চরমটুয়া ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে একটি অবৈধ ও নকল ওষুধ কারখানা সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। এ সময় ছয়জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার রাতে র‌্যাব-১১ এ অভিযান চালায়। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হাইয়ের ছেলে মো. আব্দুল মান্নান (৫৮), সদর থানার মিজানুর রহমানের ছেলে আসিফ (২১), সুধারাম থানার হরিরামপুর গ্রামের এবাদুল হকের ছেলে নাজমুল হক (২৬) ও মো. জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মো: শাকিল (১৯), সাতক্ষীরা জেলার ধোরারিয়া গ্রামের বজলু রহমানের ছেলে ইমরান হোসেন (২৪) এবং লক্ষ্মীপুর জেলার চাঁদখালী গ্রামের বদিউল আলমের ছেলে সোহাগ হোসেন (২৩)।

র‌্যাব-১১ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে চরমটুয়া ইউনিয়নের খরিদাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে ‘আলাক্সা ফার্মাসিটিকাল’ নামের একটি অবৈধ ওষুধ কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সংশ্লিষ্টরা কারখানার কোনো বৈধ লাইসেন্স দেখাতে পারেননি। আমেরিকা, ইংল্যান্ড ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশের ওষুধের ব্র্যান্ড নকল করে ওষুধ তৈরির অপরাধে কারখানা থেকে ছয়জনকে আটক এবং বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ ও ওষুধ তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

পরে নোয়াখালীর সদর উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কে এম ইয়াছিন আরাফাত ঘটনাস্থল গিয়ে কারখানাটি সিলগালা করে দেন। এর পর সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আটককৃতদের সাজা দেওয়া হয়।

সাজার বিষয়টি নিশ্চিত করে ইয়াছিন আরাফাত কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আটক আসিফ ও আবদুল মন্নানকে এক বছর এবং  নাজমুল হক, ইমরান হোসেন, সোহাগ হোসেন ও শাকিলকে এক মাসের করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।’

র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কম্পানি অধিনায়ক (ভারপ্রাপ্ত) সিনিয়র এএসপি জসিম উদ্দিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ অভিযান চালানো হয়।’


মন্তব্য