kalerkantho


রহস্যজনক মৃত্যু

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



যশোরের মণিরামপুরে ঝরনা খাতুন (১৯) নামের এক নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। রবিবার সকালে স্বজনরা তাঁর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। এই ঘটনায় স্থানীয়রা ঝরনার স্বামী রাজু মোল্যাসহ তাঁর দুই ননদ খাদিজা ও চম্পাকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কাশিমনগর গ্রামের উত্তরপাড়ায়। ঝরনা ওই পাড়ার সাহেব আলীর মেয়ে। গত ১৫ জানুয়ারি নড়াইলের ভদ্রবিলা গ্রামের শহিদ মোল্যার ছেলে রাজু মোল্যার সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় ঝরনা খাতুনের। গত শুক্রবার দুপুরে স্বামী ও দুই ননদকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন ঝরনা। নিহত ঝরনার মা ফাতেমা বেগম জানান, রাতে খাবার খাওয়ার পর মেয়ে ও জামাই একই ঘরে ঘুুমাতে যায়। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জামাইর চিৎকার শুনে ঘরে গিয়ে আড়ার সঙ্গে মেয়ের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান তিনি। ঝরনার স্বামী রাজু মোল্যা বলেন, ‘গত শনিবার ঝরনার সঙ্গে সামান্য বিষয় নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয়েছে। সকালে ঘুম থেকে জেগে দেখি ঝরনা ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছে।’ ঝরনার ভগ্নিপতি আল-আমিন বলেন, ‘ঝরনাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। স্বামী পাশে থাকতে স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যাবে এটা হাস্যকর।’ স্থানীয় কাশিমনগর ইউপি চেয়ারম্যান জিএম আহাদ আলী বলেন, ‘বিষয়টি আমার কাছে পজেটিভ মনে হচ্ছে না।’ মণিরামপুর থানার ওসি মো. মোকাররম হোসেন জানান, এই ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



মন্তব্য