kalerkantho

অনেক রঙের অদিত

৪ ফেব্রুয়ারি মিউজিক ভিডিওতে প্রকাশ পাবে অদিতের নতুন গান ‘বলে দাও’। ভালোবাসা দিবসে আসবে তাঁর করা আরো পাঁচটি গান। ব্যস্ত এই গায়ক ও সংগীত পরিচালককে নিয়ে লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন, ছবি তুলেছেন তারেক আজিজ নিশক

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



অনেক রঙের অদিত

বলে দাও

‘বলে দাও’ গানটিতে ভালোবাসার গল্প বলেছেন অদিত। সে গল্পের চরিত্র সাজাতেই ভিডিওতে নিয়েছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’ খ্যাত তাসকিন রহমানকে। সঙ্গে শেহতাজ। দুই দিন ধরে ভিডিওটির শুটিং হয়। নির্মাতা তাসকিনেরই বড় ভাই তানিম রহমান অংশু। সোহেল আরমানের কথায় গানটির সুর করেছেন অদিত, হাসিব ও দোলা। সংগীতায়োজনে অদিত। ফ্যাটম্যান ফিল্মস ও ইনফিনিট মিডিয়ার প্রযোজনায় ভিডিওতে সহযোগিতা করেছে উত্সববিডি ডট কম। অদিত বলেন, ‘গানটি তৈরির পর অংশু ভাই আর আমি ভিডিওর কথা চিন্তা করতেই তাসকিনের কথা মাথায় আসে। এটা তাঁর প্রথম মিউজিক ভিডিও। অডিওর সঙ্গে ভিডিওটির দারুণ সমন্বয় হয়েছে। আশা করি সবার ভালো লাগবে।’

ভালোবাসা দিবসে

অদিত জানান, আসছে ভালোবাসা দিবসে তাঁর করা পাঁচটি গান প্রকাশ পাবে। এর মধ্যে একটি ‘ক্লোজআপ : কাছে আসার গল্প’ নাটকের গান। এতে কণ্ঠ দেবেন দোলা ও বাম্মী। শুভমিতা ও শোয়েবের একটি দ্বৈত গান থাকবে আরেকটি নাটকে। অন্য একটি নাটকে থাকবে তাঁর করা ‘অন্তহীন’ অ্যালবামে এলিটা ও মাহাদীর গাওয়া ‘হারালো আকাশ’। মিউজিক ভিডিওতে প্রকাশ পাবে সুস্মিতা আনিসের গাওয়া ‘তোমার আকাশ’।

মন দরিয়া টু ধুলোমাখা

২০১৬ সালে ঈগল মিউজিকের ব্যানারে প্রকাশ পায় অদিতের করা ভারতীয় শিল্পী পাপন এবং দোলার ‘মন দরিয়া’। ইউটিউবে গানটির ভিডিও এরই মধ্যে ৪৬ লাখ ভিউয়ার ছাড়িয়ে গেছে। সে সময় গানটির জন্য অদিতের প্রশংসা করেছিলেন পাপন। এবার পাপনের জন্য অদিত বানিয়েছেন ‘ধুলোমাখা’। প্রথম গানটির মতো এটিরও কথা লিখেছেন আসিফ ইকবাল। ভিডিও নির্মাতাও একই, তানিম রহমান অংশু। চলতি মাসেই গানচিলের ব্যানারে গানটি প্রকাশ পাওয়ার কথা।

অদিটেরিয়ানস

নিজ সার্কেলের শিল্পীদের নিয়ে ‘অদিটেরিয়ানস’ নামে একটি প্রজেক্ট করেছেন। প্রজেক্টের প্রথম গান দোলার গাওয়া ‘জোছনা’। গত বছর গানবাংলার ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-এ গানটি নতুনভাবে করা হয়, যার প্রশংসা করেন অনেকেই। এই প্রজেক্টের ব্যানারে কিছুদিন পরই আসবে দোলার ‘জলভ্রম’। তারপরই আসবে দোলা, অদিত ও হাসিবের স্লো রোমান্টিক একটি গান। ‘অদিটেরিয়ানসের প্রথম গানটির জন্য খুব ভালো রেসপন্স পেয়েছি। এই প্রজেক্টের গানগুলোর ধরনে বৈচিত্র্য আছে। বাণিজ্যিক চিন্তা নয়, বরং নিজের মনের খোরাক মেটাতেই গানগুলো করা’—বলছিলেন অদিত।

দেশাত্মবোধ

গত বিজয় দিবসে হাত ও মুখকে যন্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে ‘এ ক্যাপেলা’ পদ্ধতিতে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত ‘আমার সোনার বাংলা’ প্রকাশ করেন অদিত। এতে তাঁর সঙ্গে কণ্ঠ দেন বালাম, তাহসান, এলিটা, অটামনাল মুনসহ ৩২ জন শিল্পী। ব্যতিক্রমী এই সংগীতায়োজনের জন্য অনেকেই অদিতকে ধন্যবাদ দেন। এই পদ্ধতিতে অদিত কাজ শুরু করেন ২০১৬ সালের বিজয় দিবসে। সে সময় প্রকাশ করেছিলেন ‘পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে’। সেটিতে কণ্ঠ দিয়েছিলেন ২০ জন শিল্পী। অদিত বলেন, ‘বিজয় দিবসে সবারই ভাবনা থাকে দেশকে নিয়ে। ব্যতিক্রমী কিছু করার চিন্তা করতে গিয়েই আইডিয়াটি মাথায় আসে। টাকা-পয়সার চিন্তা না করে শুধু দেশকে ভালোবেসেই শিল্পীরা গান দুটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন। এ বছর বিজয় দিবসে এ পদ্ধতিতে তৃতীয় গান প্রকাশ করব।’

চলচ্চিত্রে

চলচ্চিত্রের জন্য এ পর্যন্ত প্রায় ৩০টি গান করেছেন অদিত। সর্বশেষ ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এ ছিল ‘পথ যে ডাকে’। সম্প্রতি কাজ করেছেন শাকিব খান ও ববির ‘নোলক’-এ। ‘চুপিচুপি’ শিরোনামের গানটিতে অদিতের সহশিল্পী কণা। চলচ্চিত্রে অদিতের গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য—‘রাজত্ব’তে হাসিব ও দোলার গাওয়া ‘তুমি ছাড়া’, ‘দেহরক্ষী’তে ন্যানিস-শোয়েবের ‘ভালোবাসি তোমায়’ এবং ‘জাগো’তে অর্ণবের সঙ্গে তাঁর নিজের গাওয়া ‘জাগো বাংলাদেশ’ প্রভৃতি। অদিত বলেন, ‘চলচ্চিত্রের গান করাটা সব সময়ই এনজয় করি। এতে গল্পের সঙ্গে সংগতি রেখে গান করার চ্যালেঞ্জ থাকে। গানটি ভালো গান হয়ে গেলে কিন্তু আনন্দ লাগে।’

মিশন ২০১৮

চলতি বছর গান নিয়ে আরো কিছু পরিকল্পনা আছে অদিতের। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য তাঁর একক গান ‘ড্রিমার’। নামটি ইংরেজি হলেও গানটি বাংলাতেই করেছেন বলে জানান। ভিডিওসহ গানটি প্রকাশ করবেন। র্যাপার তৌফিককে সঙ্গে নিয়ে প্রকাশ করবেন ‘ক্ষ্যাপা গান ২’। থাকবে আরো একাধিক চমক। তবে সেটা এখনই বলতে চান না।



মন্তব্য