kalerkantho


সুন্দর কুিসতের নতুন গল্প

টিজার মুক্তির পরই বিশ্বজুড়ে আলোড়ন তুলেছিল। আকাশচুম্বী প্রত্যাশার মধ্যে আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’। ছবিটি নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সুন্দর কুিসতের নতুন গল্প

গত বছরের ২৩ মে ইউটিউবে মুক্তি পায় ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’-এর টিজার। অন্তর্জালে রীতিমতো ঝড় তোলে দেড় মিনিট দৈর্ঘ্যের টিজারটি। বিল কন্ডনের বহুল আলোচিত চলচ্চিত্রটি অবশেষে মুক্তি পাচ্ছে আগামীকাল।

১৭৪০ সালে প্রথমবারের মতো ছাপার অক্ষরে আসে সুশ্রী-কুশ্রীর এই ভালোবাসার গল্প। পারিবারিক জীবনে সুখী এক ধনী ব্যবসায়ী আটক হন কিম্ভূতকিমাকার জন্তুর হাতে। বাবাকে উদ্ধারে এসে সেই জন্তুর হাতে আটক হয় তার সুন্দরী কন্যা বেলে। বন্দি অবস্থায় বেলের সঙ্গে জন্তুর বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে, যা রূপ নেয় ভালোবাসায়। প্রকৃতপক্ষে জন্তুটি ছিল অভিশপ্ত এক রাজপুত্র। দম্ভের জন্য শাস্তিপ্রাপ্ত সেই রাজপুত্র আবার মানুষে পরিণত হয় বেলের ভালোবাসায়। চিরাচরিত এই জনপ্রিয় গল্প বারবার উঠে এসেছে নতুন রূপে বইয়ের পাতায়, আলো-আঁধারির মঞ্চে কিংবা রুপালি রঙের পর্দায়। ১৯৯১ সালে ওয়াল্ট ডিজনি ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’ নামে এনিমেশন চলচ্চিত্র নির্মাণ করে আলোড়ন ফেলে দেয় চারদিকে।

তাই এবার লাইভ অ্যাকশন ভার্সনটি দেখতে মুখিয়ে আছেন দর্শকরা। ছবিতে বেলে চরিত্রে এমা ওয়াটসনের পাশাপাশি বিস্ট হয়েছেন ড্যান স্টিভেন্স, শিকারি গ্যাস্টন চরিত্রে লুক ইভান্স, লেফু চরিত্রে জশ গ্যাড, মিসেস পটস চরিত্রে আছেন এমা থম্পসনের মতো জনপ্রিয় তারকারা। শুরুতে এত বড় বাজেটের মিউজিক্যাল চলচ্চিত্র নির্মাণে সংশয় ছিল ডিজনির। কিন্তু ‘সিনডারেলা’র সাফল্য তাদের জন্য সম্ভাবনার নতুন দুয়ার খুলে দেয়।

এই ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগে ওয়ার্নার ব্রাদার্সের প্রযোজনায় ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’-এ অভিনয়ের কথা ছিল এমার। কিন্তু সেটা আলোর মুখ দেখেনি নানা কারণে। সে হিসেবে বলা যায়, বেলে চরিত্রে তাঁর দ্বিতীয় সুযোগ। এ চরিত্রে তাঁর আগে এমা রবার্টস, লিলি কলিন্সের কথা ভাবা হচ্ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত শিকে ছেঁড়ে এমার ভাগ্যেই।

চলচ্চিত্রে এমার চরিত্রটি চিরাচরিত ‘ডিজনির রাজকন্যা’ থেকে বের হয়ে কিছুটা নারীবাদী চরিত্রে পরিণত হয়েছে। সেটা কী, এখনই ভাঙছেন না নির্মাতারা। অভিনয়ের জন্য নাচ শিক্ষা থেকে শুরু করে গানের ক্লাস—সবই করতে হয়েছে। শিখতে হয়েছে ঘোড়া চালানো। ছবিটি এমার জন্য আরো একটি কারণে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এটির জন্যই ‘লা লা ল্যান্ড’ ছাড়েন, যেখানে এমার চরিত্রটি শেষ পর্যন্ত করেন আরেক এমা—এমা ওয়াটসন; যা তাঁকে অস্কার এনে দেয়। দুটি ছবির কাজ একই সময়ে শুরু হওয়ায়ও যেকোনো একটি বেছে নিতেই হতো এমাকে। যা নিয়ে আফসোস নেই তাঁর।

বিস্ট চরিত্রে অভিনয় করা ড্যান স্টিভেন্সের জন্য এটা ছিল অনেকটা নিজের অতীতের ভূমিকায় অভিনয় করা। ব্রিটিশ এ তারকা জন্মের পর থেকেই বড় হয়েছেন একা একা, জানতেন না নিজের মায়ের পরিচয়টিও। কাকতালীয়ভাবে এ ছবিতে তাঁর ভূমিকাটিও এক নিঃসঙ্গ রাজপুত্রের। নিজের অতীত সম্পর্কে একেবারেই কথা বলতে চান না স্টিভেন্স। তাই বলেছেন অভিনয় নিয়েই, ‘সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল ১০ ইঞ্চি উঁচু জুতা পরে এমার সঙ্গে নাচা। বারবার ভয় পাচ্ছিলাম ওর পা আবার না মাড়িয়ে ফেলি। ’

মুক্তির আগেই বিতর্কের সম্মুখীন ছবিটি। ডিজনির চলচ্চিত্রে প্রথমবারের মতো সমকামী চরিত্র নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অনেকে আবার একে সাহসী পদক্ষেপ হিসেবেও আখ্যায়িত করেছেন। চলচ্চিত্রের প্রধান খল চরিত্র গ্যাস্টনের প্রতি তার চাকর লেফুর আকর্ষণই এ বিতর্ক উসকে দিয়েছে। এরই মধ্যে রাশিয়ান আদালতে এ চলচ্চিত্র নিষিদ্ধ করার দাবি উঠেছে, যদিও আদালত এ দাবি নাকচ করেছেন।

 


মন্তব্য