kalerkantho

টালিগঞ্জে আমান

টালিগঞ্জে বেশ আলোচিত বাংলাদেশের এই নায়ক। পায়েল মুখার্জির সঙ্গে অভিনয় করেছেন সুশান্ত মণ্ডলের ‘শেষ বেলা’য়। ‘সংগ্রাম’ খ্যাত আমান রেজাকে নিয়ে লিখেছেন মীর রাকিব হাসান

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০




টালিগঞ্জে আমান

গত বছর একে একে সাতবার কলকাতা গেছেন। উদ্দেশ্য টালিগঞ্জের ছবিতে অভিনয়।

ঢাকার মতো সেখানেও রয়েছে তাঁর বন্ধুমহল। ‘শেষ বেলা’র প্রযোজকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয় তারাই। পরে ছবির প্রযোজক ও পরিচালক ঢাকায় এসে যোগাযোগ করলেন আমানের সঙ্গে। এভাবেই ‘শেষ বেলা’র নায়ক হলেন। “বাংলাদেশে তো অনেক ছবিই করেছি। ভাবলাম, কলকাতায় গিয়ে ভাগ্যটা যাচাই করি। সেখানে এখন মেলোডিয়াস সিনেমা হয়। এ ধরনের সিনেমা ভালো লাগে আমার। ওরা গল্পকে অনেক বেশি প্রাধান্য দেয়। ‘শেষ বেলা’র গল্পটাই ছবির হিরো। অনেক গোছানো একটা ছবি”—বললেন আমান।

ছবিতে আমানের নায়িকা পায়েল মুখার্জি। আছেন লিলি চক্রবর্তী, বিশ্বজিৎসহ অনেকেই। জীবনের শেষবেলায় সন্তানদের অবহেলার শিকার হন অনেক মা-বাবা। এ নিয়েই থ্রিলার এই ছবির গল্প। শুটিং প্রায় শেষ। এ বছরই পশ্চিমবঙ্গে মুক্তি পাবে।

‘শেষ বেলা’য় আমানের সু-অভিনয়ের প্রশংসা টালিগঞ্জের অনেকের মুখে মুখে। সেখানকার আরো কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয়ের কথা চলছে। প্রস্তাব পেয়েছেন গৌতম ঘোষের কাছ থেকেও। তবে চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলতে চাইলেন না।

ভালো ছবির অফার পাচ্ছিলেন না বলে মাঝখানে চলচ্চিত্র থেকে দূরে ছিলেন। তখন বেশ কিছু বিজ্ঞাপনচিত্র ও মিউজিক ভিডিওর মডেল হয়েছেন। অমিতাভ রেজার নির্মাণে পাঁচটি পণ্যের বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছেন। মিউজিক ভিডিও করেছেন তিনটি—ফুয়াদের মিউজিকে কোনালের ‘মন’, রাজা কাশিফের ‘আজ আকাশে’ ও লোপা হোসাইনের ‘পুনর্জন্ম’। লন্ডনের বাংলা টেলিভিশনের জন্য নির্মিত টেলিফিল্ম ‘অপরাধ’-এও অভিনয় করেছেন।

বিজ্ঞাপনচিত্র ও মিউজিক ভিডিও করেও মন ভরেনি। কারণ সিনেমা। তাই আবারও ফিরে এলেন। আমানের মতে, ‘চলচ্চিত্রের ক্রান্তিকাল কেটে যাচ্ছে। তরুণরা চলচ্চিত্রে আসছেন। জাজ মাল্টিমিডিয়ার মতো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান চেষ্টা করছে। যৌথ প্রযোজনার মাধ্যমেও চলচ্চিত্রশিল্পের অগ্রগতি হচ্ছে। এফডিসিতে বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে। আরো কিছু মাল্টিপ্লেক্স তৈরি করতে পারলেই শিল্পটি এগিয়ে যাবে। লগ্নিকারকদের টাকা ফিরিয়ে দিতে পারবেন পরিচালকরা। ’

 গত মাসে মুক্তি পাওয়া ছবি ‘প্রেমী ও প্রেমী’তে অতিথি হয়েছিলেন।

‘ছবির নায়িকা নুসরাত ফারিয়া এবং রাজু (পরিচালক জাকির হোসেন রাজু) স্যারের সঙ্গে কাজ করে ভীষণ ভালো লেগেছে। সুযোগ দেওয়ার জন্য আজিজ ভাইকেও ধন্যবাদ। জাজের সঙ্গে প্রথমবার কাজ করেছি, দারুণ অভিজ্ঞতা’—বললেন আমান।

শুটিং করছেন সোহেল আরমানের ‘ভ্রমর’-এর। ছবিতে প্রথমবারের মতো খলনায়কের ভূমিকায় দেখা যাবে তাঁকে। হাতে আছে আরো দুটি ছবি—জেমস কাজলের ‘ভয়ঙ্কর নেশা’ এবং লন্ডনপ্রবাসী মিনহাজ কিবরিয়ার ‘শতরূপে শতবার’। ‘শতরূপে শতবার’-এ তাঁর নায়িকা লামিয়া মিমো।

বাবা আবু নাসের ব্যবসায়ী, মা জাহানারা বেগম যশোর জেলা আদালতের বিচারক। মাকে দেখেই ছোটবেলায় ভেবেছিলেন আইন পেশায় ক্যারিয়ার গড়বেন। আইন পড়েছেন ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনে। এখন প্র্যাকটিস করছেন সুপ্রিম কোর্টে।

চলচ্চিত্রে প্রায় দেড় যুগ হয়ে গেল। অভিনয় করেছেন প্রায় ২০টি ছবিতে। তবু তৃপ্ত নন এই অভিনেতা, “শিল্পীর অভিনয়ের ক্ষুধা কখনো শেষ হয় না, আমারও মেটেনি। টুকরো টুকরো সাফল্য কখনোই আমাকে প্রশান্তি দেয় না। আরো ভালো কিছু করার ক্ষুধা জন্মায়। জানি আমার আরো ভালো কিছু প্রাপ্য ছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্য, আমরা যখন শুরু করেছি তখন বছরে খুব কম ভালো ছবি হতো। আন্তর্জাতিক মানের একটি ছবিই করলাম—মনসুর আলীর ‘সংগ্রাম’। ছবিটা আমাকে দেশ-বিদেশে অনেক পরিচিতি দিয়েছে। সামনে আরো অনেক পথ বাকি। শেষটা দেখে নিতে চাই। ”


মন্তব্য