kalerkantho

সাক্ষাৎকার

‘এটা মিথ্যা ও সাজানো মামলা’

স্বামী সানাউল্লাহ নূর সাগরের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা করেছেন তাঁর প্রথম স্ত্রী। এ নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে আছেন কণ্ঠশিল্পী মৌসুমী আক্তার সালমা। তাঁর সঙ্গে কথা বলেছেন রবিউল ইসলাম জীবন

২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘এটা মিথ্যা ও সাজানো মামলা’

কিছু সংবাদমাধ্যমে এসেছে, সাগরের আগের বিয়ের কথা আপনি জানতেন কোনটাতে এসেছে জানতেন না!

পুরোপুরিই জানতাম। এও জানতাম, তাদের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। তা নিয়ে আমার কোনো আপত্তি ছিল না। মিশতে গিয়ে দেখেছি, মানুষ হিসেবে সাগর খুব ভালো। তা ছাড়া আমার নিজেরও আরেকটা সংসার ছিল, সেই ঘরে বাচ্চাও আছে। একটি গণমাধ্যমে এসেছে, আমি নাকি সাগরের আগের বিয়ের খবর জানতাম না! এমন কোনো কথা আমি কোথাও বলিনি।

 

স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে আপনার বক্তব্য কী?

এখানে আমি কিন্তু সাবজেক্ট নই। আমার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে তার সাবেক স্ত্রী। তাদের বিচ্ছেদের পরই আমি বিয়ে করেছি। ডিভোর্স হয়েছে এক বছর আগে। আর আমরা বিয়ে করেছি গত ৩১ ডিসেম্বর। ডিভোর্সের এক বছর পর কিভাবে নারী নির্যাতন মামলা হয়! মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, সাগর নাকি লুকিয়ে আমাকে বিয়ে করেছে। অথচ আমি কিন্তু বিয়ের পর সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছি। তারা নাকি মামলা করেছে ১৯ নভেম্বর। তাহলে এত দিন চুপ ছিল কেন? এটা মিথ্যা, সাজানো মামলা। আমাদের মানসিকভাবে হয়রানি করার জন্য এই মামলা সাজানো হয়েছে। সাগর একজন আইনজীবী, লন্ডনে বার-অ্যাট-ল পড়ছে। আইনিভাবেই সে সব কিছু মোকাবেলা করবে।

 

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রকাশিত হয়েছে আপনার দেশাত্মবোধক গান বাংলাদেশ

দেশের প্রতি ভালোবাসার জায়গা থেকে দুই বছর আগে গানটি করেছিলাম। ব্যস্ততাসহ নানা কারণে করি করি করেও ভিডিওটি করা হচ্ছিল না। এবার করেছি। প্রকাশ করেছি আমার ইউটিউব চ্যানেল ‘সালমা মিউজিক’-এ। বান্দরবানসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের মনোরম দৃশ্য উঠে এসেছে ভিডিওতে। সুর-সংগীতায়োজনের পাশাপাশি আমার সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছেন নাদিম। ভিডিও নির্মাতা নিয়াজ আহমেদ। আমার দুর্ভাগ্য গানটি প্রকাশের পর সবাই যখন প্রশংসা করছে, তখনই এই ঝামেলায় পড়লাম।

মন্তব্য