kalerkantho


বিদায় স্ট্যান লি

রিদওয়ান আক্রাম   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিদায় স্ট্যান লি

গত বছর মারা গিয়েছিলেন স্ত্রী। তাঁদের দাম্পত্যজীবন ছিল সাত দশকের। স্বাভাবিকভাবেই এত দিনের সঙ্গীর অভাব অনুভব করতেন স্ট্যান লি। ওপারে স্ত্রীকে আর অপেক্ষায় না রেখে সোমবার চলেই গেলেন স্পাইডারম্যান, আয়রনম্যান, এক্সম্যান, ফ্যান্টাস্টিক ফোর, হাল্কের মতো বিখ্যাত সব সুপারহিরোর এই স্রষ্টা। তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। গণমাধ্যমে স্ট্যানের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেন তাঁর মেয়ে জোয়ান সিলিয়া। ১৯২২ সালের ২৮ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। আসল নাম স্ট্যানলি মার্টিন লিবার। তবে সারা বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেন ‘স্ট্যান লি’ নামেই। প্রথম দিকে ওয়েস্টার্ন ও রোমান্টিক গল্প লিখতেন। পরে সুপারহিরোদের গল্প লেখা শুরু করেন। যুক্তরাষ্ট্রে সৃষ্টিশীল শিল্পীদের দেওয়া সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘ন্যাশনাল মেডেল অব আর্টস’ তাঁকে দেওয়া হয় ২০০৮ সালে। তাঁর সৃষ্টি করা চরিত্রে অভিনয় করে বিখ্যাত হওয়া হলিউড তারকারা নিজ নিজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর প্রতি নিজেদের শ্রদ্ধা প্রকাশ করছেন। এঁদের মধ্যে আছেন রবার্ট ডাউনি জুনিয়র (আয়রনম্যান), হিউ জ্যাকম্যান (উলভারিন), ক্রিস ইভানস (ক্যাপ্টেন আমেরিকা), ক্রিস হেমসওয়ার্থ (থর), ক্রিস প্রেট (গার্ডিয়ান অব দ্য গ্যালাক্সি), টম হল্যান্ড (স্পাইডারম্যান)।

স্ট্যান লি একজন লেখক ও সম্পাদক হিসেবে মার্ভেল কমিকসকে শীর্ষে নিয়ে গেছেন। গত শতাব্দীর ষাটের দশকের দিকে তিনি শিল্পী জ্যাক কিরবি ও স্টিভ ডিটকোর সঙ্গে কাজ শুরু করেন। তার আগেও যে আমেরিকানরা সুপারহিরোদের সঙ্গে পরিচিত ছিল না তা কিন্তু নয়। তাঁর সৃষ্টি করা সুপারহিরোগুলো অনেকটা মানবিক। অনেকে মনে করে, এসব কারণই স্ট্যান লির সৃষ্ট সুপারহিরোকে মানুষের কাছে এত বেশি জনপ্রিয় করে তুলেছে। মার্ভেল কমিকসের ডজনখানেকেরও বেশি চলচ্চিত্রে তাঁকে অভিনয় করতে দেখা গেছে। কয়েক সেকেন্ডের জন্য হলেও তাঁকে সেসব সিনেমায় দেখা যেত। শুধু তাই নয়, তাঁর সংলাপও থাকত। এটা পরে এক ধরনের প্রথা হয়ে গিয়েছিল। ভক্তরাও বিষয়টাকে সাদরেই গ্রহণ করেছিল। আগামী বছর মুক্তি পেতে যাওয়া ‘অ্যাভেঞ্জার ৪’-এ তাঁকে শেষবারের মতো অভিনয় করতে দেখা যাবে।



মন্তব্য