kalerkantho

সেরা অভিনেতা

ওল্ড ইজ গোল্ড

কখনো নায়ক, কখনো খলনায়ক। যেকোনো চরিত্রেই লাজবাব। ‘ডার্কেস্ট আওয়ার’-এ চার্চিল করে সেরা অভিনেতার অস্কার জিতলেন গ্যারি ওল্ডম্যান

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ওল্ড ইজ গোল্ড

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে সিরিয়াস সব চরিত্রে দেখা গেছে, যার অনেকগুলোই বেশ গুরুগম্ভীর, বিষাদময়। তাই অনেক ছবিতেই উল্লেখযোগ্য পারফরম্যান্স থাকলেও সেসব আমদর্শক জানত না। দুনিয়াজুড়ে সাধারণ দর্শকের কাছে অভিনেতার পরিচিতি ‘হ্যারি পটার’ আর ‘ব্যাটম্যান’ সিরিজ দিয়ে। প্রথমটির সাইরাস ব্ল্যাক আর পরেরটির পুলিশ অফিসার জিম গর্ডনকে এখনো মনে রেখেছে মানুষ। এই দুই ছবির সাফল্যের জন্যই কিনা পরে ‘প্যারানোইয়া’, ‘রোবোকপ’ ইত্যাদির সহজ চরিত্রের জন্য রাজি হন। নিজের শক্তিশালী কণ্ঠের জন্য আলাদা খ্যাতি আছে ওল্ডম্যানের। অভিনয়ের সঙ্গে তাই গানও গেয়েছেন। তাও যার তার সঙ্গে নয়, গলা মিলিয়েছেন ডেভিড বোওয়ির সঙ্গে। ক্যারিয়ারে নানা বৈচিত্র্যময় চরিত্র করলেও এখনো সন্তুষ্ট নন তিনি, ‘আমাকে কিভাবে কাজে লাগাবে হলিউড আসলে সেটা জানে না। নিশ্চিতভাবে কোনো রোমান্টিক ছবিতে আমার নাম প্রস্তাব করা হলে সেটা বাদ পড়ে যাবে।’ ‘পুরনো গ্যারিকে পাওয়া যাচ্ছে না’ বলে যারা রব তুলেছিল তাদের জন্য মোক্ষম জবাব ছিল ‘ডার্কেস্ট আওয়ার’। গেল বছর মুক্তি পাওয়া এই ছবিতে সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিলের চরিত্র করেন। ছবিতে টাক মাথার গ্যারিকে দেখলে যে কেউই ধন্দে পড়ে যাবে। এই চরিত্রের জন্য বলা যায় ‘জীবনবাজি’ রেখেছিলেন। টানা এক বছর চার্চিলকে নিয়ে লেখা বই পড়েছেন, চালচলন সম্পর্কে ধারণা নিয়েছেন। সবচেয়ে বিপদে পড়েছিলেন চার্চিলের সিগার খাওয়া রপ্ত করতে। ‘দিনে ১২টি করে সিগার খেতে হয়েছে। প্রায় ৩০ হাজার পাউন্ডের খেয়েছি। পাকস্থলী বিষাক্ত হয়ে উঠেছিল। এতটাই শরীর খারাপ করেছিল যে কোলনোস্কপি করে নিশ্চিত হতে হয়েছে বড় কোনো সমস্যা হয়েছে কি না।’ এত কষ্টের ফল মিলেছে। ‘ডার্কেস্ট আওয়ার’ তাঁকে দিয়েছে দুই হাত ভরে। গোল্ডেন গ্লোব, বাফটার পর অস্কারেও হয়েছেন সেরা অভিনেতা।


মন্তব্য