kalerkantho

চলচ্চিত্র

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চলচ্চিত্র

প্রেমের নাম বেদনা : অভিনয়ে বাপ্পারাজ, অমিত হাসান, পূর্ণিমা, শিল্পী। পরিচালক রাজ্জাক।

সকাল ১০টা ৩০ মিনিট, বৈশাখী টিভি।

গল্পসূত্র : জমিদারবাড়ির ছেলে রাশেদ ও রাজা। রাশেদ শহরে থাকে, রাজা গ্রামের সম্পত্তি দেখাশোনা করে। রেখা আর কেয়া দুই বান্ধবী। রেখা ভালোবাসে রাজাকে। কিন্তু রাজার পছন্দ কেয়াকে। রাশেদ শহর থেকে গ্রামে ফেরে জমির কাগজপত্র ঠিক করতে। কেয়াকে দেখে প্রেমে পড়ে যায়। শুরু হয় চারজনের মধ্যে সম্পর্কের টানাপড়েন।

 

মেমসাহেব : অভিনয়ে উত্তম কুমার, অপর্ণা সেন, গীতা দে। পরিচালক পিনাকী মুখার্জি। দুপুর ১২টা, ডিডি বাংলা।

গল্পসূত্র : বাচ্চুকে আর লেখাপড়া করানোর সামর্থ্য নেই তার বাবার। বাধ্য হয়েই বাচ্চুকে শিক্ষাজীবনের ইতি টানতে হয়। পাড়ার খবরের কাগজে প্রতিবেদকের চাকরি জোটে। শান্তিনিকেতনের বসন্ত উত্সবের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে পরিচয় হয় কাজলের সঙ্গে। তারা প্রেমে পড়ে। কাজলের প্রভাবে পরিবর্তন আসে বাচ্চুর উচ্ছৃঙ্খল জীবনে।

 

নাচ : অভিনয়ে অভিষেক বচ্চন, অন্তরা মালি, হৃতেশ দেশমুখ, মুকেশ ভাট। পরিচালক রাম গোপাল বর্মা। সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট, ফিল্মি।

গল্পসূত্র : মধ্যবিত্ত ঘরের সন্তান অভি ও রেবা। দুজনেই মুম্বাই এসেছে নিজেদের স্বপ্ন পূরণের জন্য। অভির ইচ্ছা অভিনেতা আর রেবার ইচ্ছা কোরিওগ্রাফার হবে। অভিকে অভিনেতা হতে হলে নাচ জানতে হবে, কিন্তু সে নাচ জানে না। অভির সাহায্যে এগিয়ে আসে রেবা। দুজনে প্রেমে পড়ে। ক্রমেই অভি নামকরা তারকা হয়ে ওঠে। কিন্তু রেবা তার পেশায় সাফল্য লাভ করতে পারে না। রেবার সহায়তায় এগিয়ে আসতে চায় অভি, কিন্তু রেবা তার সহযোগিতা চায় না। তাদের মধ্যে বাড়তে থাকে দূরত্ব।

 

 

স্টার ওয়ারস : দ্য ফোর্স অ্যাওয়েকেনস : অভিনয়ে হ্যারিসন ফোর্ড, মার্ক হ্যামিল, ক্যারি ফিশার, অ্যাডাম ড্রাইভার, ডেইজি রিডলি। পরিচালক জে জে আব্রামস। দুপুর ২টা, স্টার মুভিজ।

গল্পসূত্র : অশুভ শক্তি প্রতিষ্ঠার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে ফার্স্ট অর্ডার নামের এক গোষ্ঠী। এই গোষ্ঠীর নেতা মাস্টার স্নোক। তার হয়ে কলকাঠি নাড়ছে শক্তিশালী কাইলো রেন। এদিকে লুককে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। জেনারেল লেইয়া ও রেজিস্টেন্স বাহিনী লুকের খোঁজ চালিয়ে যাচ্ছে। এমন সময় রেজিস্টেন্স পাইলট পোর হাতে আসে লুকের অবস্থানের ম্যাপ। কিন্তু ফার্স্ট অর্ডারের স্টর্মট্রুপার বাহিনীর হাতে ধরা পড়ার আগেই ম্যাপটা সে ড্রয়েড বিবি-৮-এর কাছে দেয়। এদিকে ধ্বংসযজ্ঞ দেখে বোধোদয় হয় ফিন নামের এক ট্রুপারের। অর্ডারের কাছে আটক পোকে নিয়ে সে পালিয়ে যায়। উদ্দেশ্য বিবি-৮ কে বের করে রেজিস্টেন্স বেইসের কাছে ম্যাপ নিয়ে যাওয়া।


মন্তব্য