kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টাইগারদের জন্য শুভকামনা

এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টির ফাইনালে আজ ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। প্রিয় দলকে শুভকামনা জানিয়ে নিজেদের অনুভূতির কথা জানিয়েছেন কয়েকজন ক্রিকেটপ্রেমী তারকা

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



টাইগারদের জন্য শুভকামনা

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী

দেড়-দুই বছর ধরে অসাধারণ ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। আমার চোখে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী একটি দল।

যেকোনো ম্যাচে বাংলাদেশ জিতবে, এটাই এখন স্বাভাবিক। আবার শক্তিশালী একটি দলও মাঝেমধ্যে হারতে পারে। তবে আজকের ম্যাচটি নিয়ে খুবই আশাবাদী। পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত করেছে মাশরাফিরা।   গোছানো দল হিসেবে খেলছে সবাই। এর মধ্যে বিশেষভাবে একজনের নাম উল্লেখ করতে চাই, তিনি আল-আমিন। চারটি ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে নাস্তানাবুদ করেছেন। যদিও তাঁকে নিয়ে তত আলোচনা নেই। নেতা মাশরাফির প্রতিও আমার বিশ্বাস অগাধ। আজ আবার বাঘের গর্জন শুনুক বিশ্ব, এই কামনাই করি।

নওশীন

ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রতিটা মুহূর্ত খুব আগ্রহ নিয়ে উপভোগ করব। বাংলাদেশ দলকে নিয়ে আমার উত্তেজনা এতই যে খেলা দেখার সময় হয়তো নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে যাওয়ার অবস্থা হবে! মন বলছে, আজকের খেলাটা বাসায় দেখলেই বাংলাদেশ জিতবে, আর তাই মাঠে যাচ্ছি না। দলের প্রত্যেক ক্রিকেটারের প্রতি আমার আস্থা আছে। আমি জানি, তাঁরা জীবন বাজি রেখে লড়বে। বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের হাসি লুকিয়ে আছে ম্যাশের মুখে। মনে হচ্ছে, তাঁর অসাধারণ ক্যাপ্টেন্সিতে আমরা কাপটা জয় করবই। গত কয়েক মাসে এই দলটা আমাদের এত কিছু দিয়েছে যে অনেক কষ্টই ভুলে গেছি। বাংলাদেশ দলের জন্য আমার অনেক শুভকামনা।

কণা

ফাইনাল ম্যাচটা দেখব বলে হাতে কোনো কাজ রাখিনি। বাংলাদেশ যেভাবে খেলছে সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারলে জেতাটা খুব একটা কঠিন হবে না। সবাই বেশ ফর্মে আছে। আজকে যেহেতু ফাইনাল, ব্যাটসম্যানদের আরো বেশি সময় ধরে ক্রিজে থাকার চেষ্টা করতে হবে। ফিল্ডিংটা আরো টাইট করা গেলে ভারতকে চাপে রাখা যাবে। আল-আমিনের কাছে এই ম্যাচেও অনেক প্রত্যাশা। প্রতিটা ম্যাচে তিনি চমৎকার বোলিং করেছেন। আশা করি, আজকেও করবেন। আর সাব্বির যদি একটু সেট হতে পারেন তাহলে আজও বড় ইনিংস পাবেন। বাকিদের সাপোর্টটাও ইমপরট্যান্ট। জয়-পরাজয় যাই হোক, বাংলাদেশ ফাইনালে খেলছে, এই ব্যাপারটাকেই আমাদের সম্মান করা উচিত। টাইগারদের জন্য অনেক অনেক শুভকামনা।

মিশু সাব্বির

এশিয়া কাপ হলেও এটা কোনো অংশেই বিশ্বকাপ থেকে কম নয়। মনে হচ্ছে, আজকের ম্যাচটা আমরা জিতবই। প্লেয়ারদের স্পিরিট, মানুষের ভালোবাসা দুই মিলে অন্য রকম একটা শক্তি তৈরি হয়েছে। এখন জাস্ট ফলাফল বাকি। বাংলাদেশ আগে ব্যাট করলে অন্তত ১৫০ রান করতে হবে। ভারত আগে ব্যাট করলে ওদের ১৩০ রানের মধ্যে আটকাতে হবে। আমাদের দলে চারজন পেসার। সবাই দারুণ ছন্দে আছেন। তামিম ও সাব্বির টি-টোয়েন্টিতে সেরা ফর্মে আছেন। তাঁদের সঙ্গে অন্যরা জ্বলে উঠতে পারলে উৎসবটা আমাদেরই হবে।

অনুলিখন : রবিউল ইসলাম জীবন


মন্তব্য