kalerkantho


বোমা ফাটিয়ে দুই বাড়িতে ডাকাতি

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বোমা ফাটিয়ে দুই বাড়িতে ডাকাতি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভায় দুই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা গত সোমবার রাতে শ্রীরামপুর এলাকায় বোমা ফাটিয়ে অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য আমজাদ আলীর বাড়িতে ডাকাতি করে। এ সময় চারজনকে কুপিয়ে-পিটিয়ে আহত করা হয়। পরে ডাকাতরা কমলাপুর এলাকায় কুয়েতপ্রবাসী লাল মিয়ার বাড়িতে হানা দেয়। আহতদের যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ডাকাতি শেষে গান্না সড়কের সিনহদ বেলতলা মাঠের আখক্ষেতে তিনটি বোমা, ডাকাতিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ব্যাগ, কাপড়, লুঙ্গি, গামছা ও টর্চলাইট ফেলে রেখে যায় ডাকাতরা। গতকাল মঙ্গলবার সকালে এসব জব্দ করেছে পুলিশ। এ ছাড়া কালীগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে কলেজপাড়া এলাকার যুবক ছানিকে আটক করা হয়েছে।  কালীগঞ্জ ইউএনও সুবর্ণা রানী সাহা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

জান্নাতুল ফেরদৌস অভিযোগ করেন, সোমবার রাত ১টার দিকে ১০-১২ জন ডাকাত তাদের বাড়িতে ঢুকে সবাইকে জিম্মি করে ডাকাতি শুরু করে। এ সময় বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে ডাকাতরা তাঁর (জান্নাতুল) শ্বশুর অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য আমজাদ ও স্বামী আজাদকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। পরে ডাকাতরা তাঁর শ্বশুর-শাশুড়ি মনোয়ারা বেগম ও স্বামীকে কুপিয়ে জখম এবং তাঁকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ কয়েক লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয় ডাকাতরা। পালিয়ে যাওয়ার সময় বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। পরে রাত ৩টার দিকে কমলাপুর এলাকায় কুয়েতপ্রবাসী লাল মিয়ার বাড়িতে হানা দেয় ডাকাতরা। এ সময় তারা বাড়ির সবাইকে জিম্মি করে লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটে নিয়ে পালিয়ে যায়।

কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাজ্জাদ হোসেন জানান, বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। একই থানার ওসি ইউনুচ আলী জানান, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কলেজপাড়ার ছানিকে আটক করা হয়েছে।



মন্তব্য