kalerkantho


খ্রিস্টান পরিবারের ওপর হামলা

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



খ্রিস্টান পরিবারের ওপর হামলা

যশোরের শার্শা উপজেলার গিলাপোল গ্রামে শনিবার রাতে এক খ্রিস্টান পরিবারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে দুবৃত্তরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

যশোরের শার্শা উপজেলার উলাশি ইউনিয়নের গিলাপোল গ্রামে শনিবার রাতে এক খ্রিস্টান পরিবারে হামলার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা যুবলীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ও ইউপি সদস্য তরিকুল ইসলাম মিলন এবং তাঁর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় পুলিশ আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে ইউপি সদস্য তরিকুল ইসলাম মিলন খ্রিস্টান পরিবারের সদস্য জসিব জুড়ন দাসের কাছে চাঁদা দাবি করছে। শনিবার রাতে বাজারে এ নিয়ে জসিব জুড়ন দাসের ছেলে সালমন দাসের সঙ্গে মিলনের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সালমন দাস টর্চলাইট দিয়ে মিলনের মাথায় আঘাত করেন। এরপর মিলনের লোকজন হামলা চালিয়ে জসিব জুড়ন দাসের বাড়িতে ভাঙচুর ও লুট করেন। হামলায় জসিব জুড়ন দাস ও তাঁর ছেলে সালমন দাস আহত হন। রবিবার সকালে এ ঘটনায় শার্শা থানায় সালমন দাস বাদী হয়ে ১৭ জনের নামে একটি মামলা করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

ইউপি সদস্য মিলন বলেন, ‘সম্প্রতি জমিসংক্রান্ত একটি সালিস বৈঠক নিয়ে উলাশি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আয়নাল হকের সঙ্গে তাঁর বিরোধ হয়। সেই বিরোধ থেকেই চেয়ারম্যান ও তাঁর লোকজন তাঁর নামে অপবাদ ছড়াচ্ছেন। তিনি বা তাঁর লোকজন এলাকায় কোনো ভাঙচুর বা লুটপাটের সঙ্গে জড়িত নন। এ ব্যাপারে উলাশি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আয়নাল হক জানান, মিলন মেম্বারের বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। তাঁকে ইউনিয়ন পরিষদে আসতে নিষেধ করা হয়েছে। চাঁদার দাবিতে সংখ্যালঘু খ্রিস্টান পরিবারে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করেছেন। 

শার্শা থানার ওসি (তদন্ত) তাসলিম আহমেদ তুষার জানান, হামলার ঘটনায় রবিবার সকালে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এজাহারভুক্ত আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।



মন্তব্য