kalerkantho


স্কুলে লিফলেট বিতরণে টাকা নিচ্ছেন শিক্ষা কর্মকর্তা!

নিরাপদ সড়কের জন্য করণীয়

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতের লক্ষ্যে গত সোমবার সারা দেশের বিদ্যালয়গুলোতে লিফলেট বিতরণ শুরু হয়েছে। এ প্রচারপত্র বিলির জন্য ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ ও নান্দাইলের ৩১৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে শিক্ষা কর্মকর্তা টাকা আদায় করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় জানিয়েছে, নিরাপদ সড়কের জন্য সচেতনতা বৃদ্ধির বিষয়ে গত ২০ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ একটি পরিপত্র জারি করে। এতে স্কাউটস ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমে লিফলেট বিতরণের জন্য বলা হয়।

নান্দাইল উপজেলার বেশ কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অভিযোগ করেন, শিক্ষার্থীর সংখ্যা অনুপাতে টাকা আদায় করা হচ্ছে। শিক্ষার্থী মাথাপিছু এক টাকা করে অনেকেই টাকা জমা দিতে বাধ্য হয়েছে। নান্দাইল উপজেলায় ১৭৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৭৮ হাজার ৬ শ।

চামারুল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মতিউর রহমান বলেন, ‘আমার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪২৬ জন। প্রতি শিক্ষার্থী এক টাকা হিসাবে ৪২৬ টাকা জমা দিয়েছি।’

নান্দাইল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ইউপিএও) মোহাম্মদ আলী সিদ্দিক বলেন, প্রতিটি লিফলেট ফটোস্ট্যাট করতে লাগে দুই টাকার ওপরে। শিক্ষার্থী মাথাপিছু এক টাকা করে হিসাবে টাকা দিতে প্রধান শিক্ষকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আনারকলি নাজনীন বলেন, ‘প্রচারপত্র বিতরণ বাবদ উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয় থেকে ১০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। বাকি টাকা আমরা ব্যবস্থা করব। ঈশ্বরগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১৪০টি। এসব বিদ্যালয়ে অর্ধ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী পড়ালেখা করে।’

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোফাজ্জল হোসেন বলেন, লিফলেট ফটোস্ট্যাট করতে যে টাকা খরচ হবে তার খরচ স্কাউট তহবিল থেকে ব্যয় করার কথা আছে। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



মন্তব্য