kalerkantho


মামলা, রিমান্ড আবেদন

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন ভাংনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনে রবিবার সকালে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে কিশোর ইমু খুনের ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। ওই দিন রাতে নিহতের বড় ভাই আজমাইন ছয়জনের নামে ও অজ্ঞাতপরিচয় আটজনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলাটি করেন।

মামলার বাদী আজমাইন জানান, এক মাস আগে ফুটবল খেলা নিয়ে ভাংনার কিছু ছেলের সঙ্গে ইমুর ঝগড়া হয়। এলাকার বড় ভাইয়েরা বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। রবিবার সকালে ইমু বন্ধু আকাশের সঙ্গে আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ফিরছিল। ভাংনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনে বালুর মাঠ এলাকায় ১৪-১৫ জন তাদের গতিরোধ করে। তারা ‘এই ছেলেটাই ছিল’ বলে ইমুকে মারধর করে। একজন ইমুর মাথায় ও বুকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্ত শেষে বোরহানীবাগ কবরস্থানে দাফন করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফরহাদ হোসেন ছোটন বলেন, এ ঘটনায় রবিবার রাতে এলাকাবাসী কয়েকটি ছেলেকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। তাদের মধ্যে এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আকাশের দেখানো মোতাবেক এবং এজাহারনামীয় দুই আসামি মো. রুবেল চৌধুরী ও সৌরভ মাঝিকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।



মন্তব্য