kalerkantho


কালীগঞ্জে ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়ম

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১৬ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



কালীগঞ্জে ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়ম

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদে ওজনে কম দেওয়া চাল প্রকাশ্যে মাপা হচ্ছে। ছবিটি মঙ্গলবারের। ছবি : কালের কণ্ঠ

সাতক্ষীরায় ঈদুল আজহা উপলক্ষে হতদরিদ্রদের মধ্যে ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। জনপ্রতি গড়ে তিন কেজি করে চাল কম দেওয়া হয়েছে। গত রবিবার ও মঙ্গলবার সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদে এ চাল বিতরণ করা হয়।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে হতদরিদ্রদের জন্য পরিবারপ্রতি ২০ কেজি করে চাল বিতরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ জন্য উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে পাঁচ হাজার ১৫২টি কার্ড দেওয়া হয়। ওই চাল সুষ্ঠুভাবে বিতরণের জন্য উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুল ইসলামকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

বন্দকাটি গ্রামের আক্কাজ মোড়লের মেয়ে নাজমা খাতুন জানান, কেউ-ই ১৭ কেজির ওপরে চাল পাননি। বিষয়টি তিনি ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর আহম্মদ মাসুমকে অবহিত করেন।

বন্দকাটি গ্রামের আলী মোড়লের ছেলে রেজাউল করিম জানান, মঙ্গলবার সকালে তিনি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে চাল নিয়ে এসে পাশের একটি দোকানে গিয়ে ওজন দেন। ওজন করে দেখা যায়, ২০ কেজির পরিবর্তে চাল হয়েছে সাড়ে ১৬ কেজি। একই অভিযোগ করেন, মুকুন্দ মধুসুধনপুর গ্রামের খলিলুর রহমান, বন্দকাটির আনছার আলী, অহিদুল ইসলাম, নাজমুল হক, ইয়াছিন আলী, দেবাশীষ সরকারসহ অনেকে। কার্ডপ্রতি গড়ে তিন থেকে সাড়ে তিন কেজি চাল কম দেওয়া হয়েছে বলে তাদের অভিযোগ।

জানা গেছে, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম চাল বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন না। তাঁর পরিবর্তে দায়িত্ব পালন করেন নীলকণ্ঠপুরের হারুন অর রশিদ মিন্টু। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ ভিজিএফ কার্ডে চাল বিতরণে অনিয়ম করে চেয়ারম্যান ও তাঁর সহযোগীরা এসব চাল আত্মসাৎ করেছেন।

জানতে চাইলে বিষ্ণুপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজউদ্দিন বলেন, ২০ কেজি ধারণক্ষমতাসম্পন্ন বালতিভর্তি করে বস্তায় চাল ঢেলে দেওয়া হয়েছে। চাল কম দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।

কালীগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর আহম্মদ মাসুম জানান, বিষ্ণুপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তিন কেজি করে চাল কম দেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 



মন্তব্য