kalerkantho


চুয়াডাঙ্গার ইম্প্যাক্ট হাসপাতাল

চিকিৎসকদের নামে আরো একটি মামলা

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি   

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



চুয়াডাঙ্গা শহরের ইম্প্যাক্ট মাসুদুল হক মেমোরিয়াল হাসপাতালের তিন চিকিৎসকের নামে আরো একটি মামলা করা হয়েছে। জীবননগর উপজেলার কয়া গ্রামের মো. আবুল কালাম গত সোমবার এ মামলা করেন। আদালতের বিচারক মামলাটি তদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামিরা হলেন হাসপাতালের চিকিৎসক সনোলজিস্ট কনসালট্যান্ট ডা. সাইফুল কবির, চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা. মো. শাহীন ও মেডিক্যাল অফিসার ডা. পারভীন ইয়াসমিন। মামলার বিবরণে জানা গেছে, চোখে সমস্যা দেখা দিলে ২০১৬ সালের ১২ জুন কুলসুম খাতুন নামের এক নারীকে তাঁর স্বামী (মামলার বাদী) চুয়াডাঙ্গার ইম্প্যাক্ট হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে তার ডান চোখ অপারেশন করা হয়। পরে চিকিৎসকরা বলেন, বাম চোখটিও অপারেশন করাতে হবে। ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর কুলসুম খাতুনের বাম চোখটিও অপারেশন করা হয়। অপারেশনের পর কুলসুম খাতুনের দুই চোখই নষ্ট হয়ে যায়। কুলসুম খাতুন এখন পুরোপুরি অন্ধ। মামলার বাদীর অভিযোগ, ইম্প্যাক্ট হাসপাতালের চিকিৎসকরা ভুল চিকিৎসা ও নিম্নমানের ওষুধ ব্যবহার করে তাঁর স্ত্রীর দুই চোখ নষ্ট করে দিয়েছেন।

 


মন্তব্য