kalerkantho


নিখোঁজের ১২ দিন পর মিলল শিশুর লাশ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আড়াইহাজার উপজেলায় নিখোঁজের ১২ দিন পর সাত বছরের শিশু সুরাইয়া আক্তারের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে আব্দুল কুদ্দুসের পরিত্যক্ত ঘর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। সুরাইয়া ইসলামপুর গ্রামের অহিদ মিয়া ও রহিমা বেগমের মেয়ে। পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৭ জানুয়ারি দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় সুরাইয়া। গতকাল দুপুরে স্থানীয়রা পরিত্যক্ত ঘরটি থেকে দুর্গন্ধ পেয়ে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরাইয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ১০০ শয্যার নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। আড়াইহাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, লাশটি ঘরের আড়ার সঙ্গে বাঁধা ছিল। এ ছাড়া লাশের মুখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। তবে ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

কক্সবাজারে দুই আসামি গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় মামাতো বোনকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় যুবক সুলতান আহমেদ মিন্টুকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছে দুই আসামি। গত বৃহস্পতিবার রাতে কক্সবাজার থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে নারায়ণগঞ্জ গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।  গ্রেপ্তারকৃতরা হলো সোনারগাঁর বন্দেরা গ্রামের আব্দুর রফিকের ছেলে জাকির হোসেন ও সারোয়ার হোসেনের ছেলে আলম মিয়া আলো।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মনিরুল ইসলাম জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে কক্সবাজারের পশ্চিম গোমাতলী গ্রাম থেকে আসামি জাকির হোসেন ও আলম মিয়া আলোকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জানুয়ারি সোনারগাঁর সাদিপুর গ্রামের কলেজছাত্রী মিতু আক্তারকে যৌন হয়রানি করে জাকির ও তার সহযোগীরা। খবর পেয়ে মিতুর ফুফাতো ভাই মিন্টু তাত্ক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে এর প্রতিবাদ করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে জাকির ও তার সহযোগীরা ১২ জানুয়ারি মিন্টুকে পিটিয়ে আহত করে। দুই দিন পর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিন্টুর মৃত্যু হয়।



মন্তব্য