kalerkantho


আশুলিয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

তিনজনকে জরিমানা ভ্রাম্যমাণ আদালতের

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আশুলিয়ায় বিভিন্ন বাসাবাড়িতে অবৈধভাবে নেওয়া আবাসিক গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় অবৈধ সংযোগ ব্যবহারের অভিযোগে তিন ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়। জব্দ করা হয় অবৈধ সংযোগে ব্যবহৃত নিম্নমানের অসংখ্য পাইপ, রাইজার ও গ্যাসের চুলা।

গতকাল বুধবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত আশুলিয়ার দক্ষিণ গাজীরচট এলাকায় সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানি লিমিটেডের এ অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাসেল হাসান।

আশুলিয়ার চার থেকে পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় অন্তত তিন শতাধিক অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এ সময় অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহারকারী বাড়ির মালিক কামরুল হাসান, ইয়াকুব আলী ও ভাড়াটিয়া হালিমা বেগমকে আলাদাভাবে ২২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সংযোগ বিচ্ছিন্নকাজে সাভার তিতাস গ্যাস অফিসের প্রায় ৩০ জন শ্রমিক অংশ নেয়।

এলাকাবাসী জানায়, কয়েক মাস আগে দক্ষিণ গাজীরচট ও এর আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় অনেক বাড়ির মালিক স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্রকে ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ নেন। অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ায় বৈধ গ্রাহকরা প্রয়োজনীয় গ্যাস পাচ্ছেন না। খবর পেয়ে গতকাল বুধবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সাভার তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ ওই এলাকার তিন শতাধিক পরিবারের অবৈধভাবে নেওয়া গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। একই সঙ্গে ওই এলাকার ৯টি মূল পয়েন্টে মাটির নিচে থাকা অবৈধ সংযোগের গ্যাসের পাইপ তুলে নিয়ে সিলগালা করে দেয় তিতাস কর্তৃপক্ষ। এ সময় নিম্নমানের কয়েক শ পাইপ উদ্ধার করা হয়। অভিযান চলাকালে অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহারকারীরা নীরবে দাঁড়িয়ে থাকলেও কোনো প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি। গ্যাসপাইপগুলো অত্যন্ত নিম্নমানের হওয়ায় যেকোনো সময় ফেটে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা ছিল বলে উল্লেখ করেন তিতাস কর্তৃপক্ষ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাসেল হাসান বলেন, ‘বৈধ গ্রাহকদের নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিতকরণ ও অবৈধ সংযোগের সংখ্যা কমাতে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। সাভার-আশুলিয়ার সব অবৈধ গ্যাসলাইন পর্যায়ক্রমে বিচ্ছিন্ন করা হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে সংশ্লিষ্টদের শাস্তিও নিশ্চিত করা হবে।’



মন্তব্য