kalerkantho


চাঁপাইনবাবগঞ্জে মিলল গৃহবধূর পোড়া লাশ

বেলাবতে চালক খুন, রাজবাড়ীতে মাদরাসাছাত্রীর মরদেহ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



চাঁপাইনবাবগঞ্জে গৃহবধূর অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রাজবাড়ীতে মাদরাসাছাত্রীর লাশ পাওয়া গেছে। নরসিংদীর বেলাবতে ছিনতাইকারীদের হাতে অটোরিকশাচালক খুন হয়েছেন। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : শহরের রামকৃষ্টপুর এলাকা থেকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে গৃহবধূ মোসা. রাশিদা বেগমের অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বজনদের অভিযোগ, স্বামীর দ্বিতীয় বিয়েতে বাধা দেওয়ার জেরে রাশিদাকে শারীরিক নির্যাতনের পর আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। রাশিদা রামকৃষ্টপুরের লেদমিস্ত্রি মিজানুর রহমানের স্ত্রী। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ১০ বছর আগে রামকৃষ্টপুরের হুমায়ুন কবিরের ছেলে মিজানুরের সঙ্গে সদর উপজেলার আমনুরা কেন্দুল গ্রামের রইসুদ্দিনের মেয়ে রাশিদার বিয়ে হয়। সম্পর্কে তাঁরা খালাতো ভাই-বোন ছিলেন। দীর্ঘদিনেও সন্তান না হওয়ায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন প্রায়ই রাশিদাকে কটু কথা শোনাত। কিছুদিন ধরে দ্বিতীয় বিয়ের কথা চিন্তা করছিলেন মিজানুর। এতে বাধা দিলে রাশিদার সঙ্গে তাঁর কলহ শুরু হয়। এর মধ্যে সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে গ্যাসের চুলার আগুনে রাশিদা দগ্ধ হয়েছে বলে চিৎকার শুরু করে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এ সময় প্রতিবেশীরা গিয়ে রাশিদাকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। রাত ৯টার দিকে সদর হাসপাতালে নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই রাশিদা মারা যান। পরে শ্বশুরবাড়ির লোকজন লাশ নিয়ে বাড়িতে চলে যায়। রাশিদার স্বজনরা ঘটনাটি পুলিশকে জানালে তারা গতকাল সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। এর আগেই মিজানুরসহ তাঁর পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়। সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ আজিম উদ্দিন জানান, গ্যাসের চুলার আগুনে সাধারণত মানুষের শরীরের নিচের অংশ পুড়ে যায়। কিন্তু রাশিদার শরীরের ১০০ ভাগ পুড়ে যাওয়ায় মনে হচ্ছে, অন্য কোনো ঘটনা থাকতে পারে। ঘটনাটিকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড দাবি করে গৃহবধূর বড় বোন তানজিলা বেগম বলেন, সন্তান না হওয়ায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন রাশিদাকে প্রায়ই নির্যাতন করত। সোমবার বিকেলেও তারা রাশিদাকে নির্যাতন করেছে।

রাজবাড়ী : নিজ বাড়ি থেকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে মাদরাসাছাত্রী বৃষ্টি খাতুনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃষ্টি বালিয়াকান্দি উপজেলার বাজেগরিয়া গ্রামের আতিয়ার রহমানের মেয়ে ও পাশের কালুখালী উপজেলার মৃগী ইউনিয়নের আড়কান্দি দাখিল মাদরাসার ছাত্রী। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। নারওয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল ইসলাম জানান, গত সোমবার সন্ধ্যায় মৃগী ইউনিয়নের মৃগী মাঠে অসুস্থ অবস্থায় বৃষ্টিকে পান স্থানীয়রা। পরে তাকে উদ্ধার করে মৃগী বাজারে পল্লী চিকিৎসকের কাছে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে বৃষ্টিকে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তার মৃত্যু হয়। পরে পরিবারের সদস্যরা লাশ নিয়ে বাড়িতে যান।

নরসিংদী : বেলাব উপজেলায় ছিনতাইকারীদের হাতে অটোরিকশাচালক জিলন মিয়া খুন হয়েছেন। গত সোমবার রাতে বীর বাঘবের এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে একই এলাকার একটি নার্সারি থেকে জিলনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অটোরিকশা ছিনতাইয়ের জন্যই জিলনকে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশ ও এলাকাবাসীর ধারণা। তিনি কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের নাপিতের চর এলাকার মৃত জগত আলীর ছেলে।  পুলিশ ও পরিবার জানায়, সোমবার সকাল ৭টার দিকে জিলন অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে আর বাড়িতে ফেরেননি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাঁর কোনো সন্ধান না পেয়ে পরিবারের লোকজন গতকাল সকালে বিষয়টি পুলিশকে জানায়। এর মধ্যে বীর বাঘবের এলাকায় লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে পুলিশ ও জিলনের পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় তারা লাশটি জিলনের বলে শনাক্ত করে।



মন্তব্য