kalerkantho


বাজিতপুরে ধর্ষণের পর হত্যার হুমকি

যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে উপজেলার সরারচর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি অপহরণ করে ধর্ষণের পর হত্যার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা মো. মঞ্জু মিয়াকে একমাত্র আসামি করে গত বুধবার করা ওই মামলায় উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া বেগম উল্লেখ করেন, গত ৩০ ডিসেম্বর একটি প্রগ্রামে যাওয়ার পথে যুবলীগ নেতা মঞ্জু পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাঁকে গালাগাল করেন। তিনি এর প্রতিবাদ করলে বাজারের লোকজনের সামনেই মঞ্জু অশ্লীল ভঙ্গি করে তাঁকে অপহরণের পর ধর্ষণের হুমকি দেন। একই সঙ্গে হত্যার পর লাশ গুম করারও হুমকি দেন তিনি।

এদিকে আদালত সূত্র জানায়, অভিযোগ আমলে নিয়ে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুন নূর ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বাজিতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া বেগম জানান, একজন নারী জনপ্রতিনিধি হিসেবে তাঁকে এভাবে হুমকি দিয়ে যুবলীগ নেতা নারীসমাজের প্রতি চরম অবমাননা ও অবজ্ঞা প্রকাশ করেছেন। তাতে সামাজিকভাবে তিনি হেয়প্রতিপন্ন হয়েছেন। স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল তাঁর বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লাগায় তিনি বেশ আতঙ্কে আছেন।

চিহ্নিত মহলটি মামলার তদন্তে বাধা সৃষ্টির পাশাপাশি সত্য আড়াল করার চক্রান্ত করতে পারে বলেও ভাইস চেয়ারম্যান শঙ্কা প্রকাশ করেন। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের পাশাপাশি উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

তবে যুবলীগ নেতা মো. মঞ্জু মিয়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে অপহরণ করে ধর্ষণের পর হত্যা ও লাশ গুমের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি জানান, গত ২৯ ডিসেম্বর তাঁর বাড়িতে স্থানীয় এমপি দাওয়াত খান। এ নিয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কটূক্তি করলে তিনি তাঁকে এ বিষয়ে কেবল জিজ্ঞাসা করেছেন।

বাজিতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহানা নাসরিন জানান, ঘটনাটি তিনি জেনেছেন। বৃহস্পতিবার তিনি আদালতের নির্দেশনার কাগজ পেয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।



মন্তব্য