kalerkantho


আন্ত নগর থামার দাবি

না হলে আশুগঞ্জে ১৬ জানুয়ারি হরতাল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম পথের আন্ত নগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি ও আগামী দুই মাসের মধ্যে অন্য দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এরপর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে হরতাল স্থগিত করা হয়েছে। গত শনিবার রাত ১১টার দিকে আশুগঞ্জ প্রেস ক্লাবে ‘জাগ্রত আশুগঞ্জবাসী’র বৈঠকে এ ঘোষণা দেওয়ার পর গতকাল রবিবারের হরতাল পালন হয়নি।

দাবি বাস্তবায়ন না হলে ১৬ জানুয়ারি হরতাল পালন করা হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়। সংগঠনটির সদস্য ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক শাহীন সিকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনকে ‘বি’ গ্রেড থেকে ‘ডি’ গ্রেডে অবনমনের প্রতিবাদ, ঢাকা-চট্টগ্রাম পথের একটি আন্ত নগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি, নকশা অনুযায়ী রেলওয়ে স্টেশনে কাজ করার দাবিতে আন্দোলনের ডাক দেয় ‘জাগ্রত আশুগঞ্জবাসী’। দাবি আদায়ে ৩১ জুলাই হরতাল ডাকা হলে রেলপথ মন্ত্রণালয় এ নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্যদের সঙ্গে গত ২৮ জুলাই সভা করে। রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ফজিলাতুন নেছা বাপ্পীসহ রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এ সভায় সব দাবি মেনে নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। এ বিষয়ে কোনো কার্যক্রম দৃশ্যমান হচ্ছে না দেখে সংগঠনের একটি দল গত ২ নভেম্বর আবার রেলপথমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে; কিন্তু এতেও কোনো সুফল না পেয়ে ৩১ ডিসেম্বর হরতাল ডাকে। এ অবস্থায় ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় রেল ভবনে সংগঠনের চার সদস্যের প্রতিনিধিদল রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠকে আবারও দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। প্রতিনিধিদলটি রাতে আশুগঞ্জে ফিরে আলোচনা করে হরতাল স্থগিতের ঘোষণা দেয়।



মন্তব্য