kalerkantho


শাহজাদপুরে কৃষি বিভাগের বিএস কোয়ার্টার প্রভাবশালীদের দখলে

খালি জায়গায় স্থাপনা নির্মাণের পাঁয়তারা

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১১ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



খালি জায়গায় স্থাপনা নির্মাণের পাঁয়তারা

শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়ন সদর কৈজুরী হাটের পাশে কৃষি বিভাগের পরিত্যক্ত বিএস কোয়ার্টার এখন প্রভাবশালীদের দখলে। এ ছাড়া কোয়ার্টারের সঙ্গে কৃষি বিভাগের জায়গায় টিনের ঘর তোলার পর নতুন করে পাকা স্থাপনা নির্মাণের পাঁয়তারা চালাচ্ছে প্রভাবশালীরা।

এ অভিযোগ করেছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

সূত্র জানায়, কৈজুরী হাটের পাশে কৃষি বিভাগের প্রায় ৫০ লাখ টাকা মূল্যের ১২ শতাংশ জায়গা রয়েছে। জায়গাটির একাংশে কৃষি বিভাগের বিএস কোয়ার্টার। অভিযোগ রয়েছে, ওই এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির ছত্রচ্ছায়ায় কর্তৃপক্ষের নিষেধ অমান্য করে কৃষি বিভাগের এ জায়গায় মৃত তফিজ প্রামাণিকের স্ত্রী রোজিনা বেগম ও তাঁর তিন ছেলে শাহিন, বিপুল ও এনছাব, তয়না শেখের ছেলে ফজর আলী, নাজিমের দুই  ছেলে আমিরুল ও আলমাছ এবং নবী হোসেনের ছেলে সেলিম চৌধুরী টিনের ঘর নির্মাণ করে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করছেন। কোয়ার্টার ভবনেও অবৈধভাবে বসবাস করছে কয়েকটি পরিবার।

জানা গেছে, যমুনা নদীর পশ্চিম তীর রক্ষা বাঁধ নির্মাণের ফলে কৈজুরী বাজার ও হাট এখন ঝুঁকিমুক্ত হওয়ায় এর সুফল পাচ্ছে এলাকার মানুষ। ভাঙন প্রতিরোধের কারণে যমুনা নদীর তীরবর্তী এ সরকারি জায়গায় একটি রাজনৈতিক দলের প্রভাবশালী কতিপয় ব্যক্তি দখলের উদ্দেশ্যে পাকা ঘর নির্মাণের জন্য সম্প্রতি ইট, বালুসহ বিভিন্ন নির্মাণসামগ্রী নিয়ে এসেছে। জায়গাটি উদ্ধারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে চিঠি দিয়েছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মন্জু আলম সরকার। কৃষি কর্মকর্তা জানান, অবৈধ দখলদারদের কারণে কোয়ার্টারটি ভেঙে সেখানে নতুন ভবন নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

জায়গাটি উদ্ধার করা জরুরি।

গতকাল শুক্রবার সরেজমিনে গেলে সংবাদকর্মীদের উপস্থিতি টের পেয়ে পরিত্যক্ত কোয়ার্টারে ও অবৈধ স্থাপনা তৈরি করে বসবাসকারী পরিবারগুলোর পুরুষ সদস্যরা সটকে পড়ে। নারী সদস্যদের বাড়িতে পাওয়া গেলেও তাঁরা সংবাদকর্মীদের কাছে দখলের বিষয়ে মুখ খোলেননি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার অনেকেই বলেন, ক্ষমতাসীন দলের কিছু লোক প্রভাব খাটিয়ে সেখানে ওই পরিবারগুলোর বসবাসের ব্যবস্থা করেছে। সেখানে দরিদ্র পরিবারের পাশাপাশি প্রভাবশালী পরিবারও বাস করে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, কৃষি বিভাগের উদাসীনতার কারণেই সেখানে অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে।

মুঠোফোনে কথা হয় আওয়ামী লীগের কৈজুরী ইউনিয়ন সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘কৃষি বিভাগ তাদের জায়গা থেকে অবৈধ দখলদারদের সরাতে না চাইলে আমাদের কী করার আছে। আমাদের সহযোগিতা চাইলে অবশ্যই করব। আর এ জায়গা দখলের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোনো নেতা বা কর্মী জড়িত নেই। ’ 

দখলের বিষয়টি নিশ্চিত করে শাহজাদপুরের ইউএনও শেহেলী লায়লা বলেন, ‘কৃষি কর্মকর্তা বিষয়টি সম্প্রতি আমাকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। ’


মন্তব্য